ঢাকা, শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ |

 
 
 
 

মাদ্রাসা ছাত্রকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন, আটক ৪ শিক্ষক

গ্লোবালটিভিবিডি ৩:১৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০

ছবি- সংগৃহীত

তোফায়েল হোসেন তোফাসানি, সাভার: সাভারের আশুলিয়ার একটি মাদ্রাসায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নির্মমভাবে দুই শিশু শিক্ষার্থীকে প্রকাশ্যে হাত-পা বেঁধে রেখে মারধর করার অভিযোগে অভিযুক্ত শিক্ষক ইব্রাহিম মিয়াসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার রাতে আশুলিয়ার স্বনির্ভর ধামসোনা ইউনিয়নের শ্রীপুরের নতুন নগর মধনেরটেক এলাকায় জাবালে নুর মাদ্রাসায় অভিযান চালিয়ে তাঁদেরকে আটক করে আশুলিয়া থানা পুলিশ।

পুলিশ জানায়, গত ১১ সেপ্টেম্বর তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আশুলিয়ার শ্রীপুরের নতুননগর মধনেরটেক এলাকায় জাবালে নুর মাদ্রাসায় শিশু শিক্ষার্থী রাকিব হোসেন (৯) কে হাত পা বেঁধে প্রকাশ্যে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে ওই মাদ্রাসার শিক্ষক ইব্রাহিম মিয়া(৩৩)। এ সময় শিক্ষক ইব্রাহিম আরেক শিশু শিক্ষার্থী মাহফুজুর রহমানকে বেঁধে রেখে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করেও তাকে মারধর করেন।

পরে খবর পেয়ে শিশু দু'টিকে উদ্ধার করে পরিবারের সদস্যরা। এদের মধ্যে শিশু রাকিব হোসেনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে টাঙ্গাইলের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার সকালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে শিশু শিক্ষার্থীকে মারধরের ভিডিও ভাইরাল হলে দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আশুলিয়া থানা পুলিশ। ঐ রাতেই অভিযান চালিয়ে ওই শিক্ষকসহ চারজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

এলাকাবাসী জানায়, গত দুই বছর আগে আশুলিয়ার শ্রীপুরের নতুননগর মধনেরটেক এলাকায় জাবালে নুর মাদ্রাসা চালু করেন ওই এলাকার বিতর্কিত ব্যক্তি আব্দুল জব্বার। ওই মাদ্রাসায় আগে দুই’শ শিক্ষার্থী থাকলেও নির্যাতনের কারণে এখন ১৪ জন শিক্ষার্থী ও দুইজন শিক্ষক রয়েছেন।

এ বিষয়ে স্থানীয় স্বনির্ভর ধামসোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম দ্রুত ওই শিক্ষকের কঠোর শাস্তি দাবি করেছেন। এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার ওসি এস এম কামরুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

আরকে/জেইউ

 


oranjee