ঢাকা, সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ |

 
 
 
 

কাশিমপুর কারাগার থেকে কয়েদি লাপাত্তা

গ্লোবালটিভিবিডি ৪:২২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ০৭, ২০২০

ছবি : গ্লোবাল টিভি

এম. আসাদুজ্জামান সাদ, গাজীপুর: গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার পার্ট-২ থেকে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত এক কয়েদি লাপাত্তা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কারাগার লকআপের পর থেকে উক্ত কয়েদি নিখোঁজ। বহু খোজাঁ-খুজি করেও শুক্রবার বিকাল ৩টা পর্যন্ত তাঁকে কারাগারের ভেতরে কোথাও খুজেঁ পাওয়া যায়নি।

নিখোঁজ কয়েদির নাম আবু বকর সিদ্দিক। আবু বকর সিদ্দিকের বাড়ি সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার আবাদ চণ্ডীপুরে।
গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এস এম তরিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

তিনি জানান, বিষয়টি প্রাথমিকভাবে তদন্ত করার জন্য অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবুল কালাম কারাগারে সরেজমিনে পরিদর্শনে গেছেন। প্রাথমিক প্রতিবেদন পাওয়ার পর সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে এ বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

কাশিমপুর কারাগার সূত্রে জানা গেছে, আবু বকর সিদ্দিককে ২০১১ সালে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত আসামী হিসেবে কাশিমপুর কারাগারে আনা হয়। তারপর থেকে তিনি কাশিমপুর কারাগারের পার্ট-২ তে বন্দী ছিলেন। ২০১২ সালের ২৭ জুলাই তাঁর সাজা সংশোধন করে তাঁকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়।

কাশিমপুরের কারাগারের একজন কমর্কতা জানান, কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার অনেক বড় কারাগার। এখানে একটি মহিলা কারাগার ও একটি হাই সিকিউরিটি কারাগারসহ মোট ৪টি কারাগার রয়েছে। বিশাল এ কারাগারের কোথাও তিনি লুকিয়ে থাকতে পারেন। ২০১৫ সালের ১৩ মে সন্ধ্যায়ও তিনি আত্মগোপন করে সেল এলাকায় সেফটি ট্যাংকির ভেতরে লুকিয়ে ছিলেন। অনেক খোঁজা-খুঁজি শেষে পরদিন তাঁকে একটি ট্যাংকির ভেতর থেকে উদ্ধার করা হয়। এবারও তা হতে পারে।

এমএস/জেইউ


oranjee