ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই ২০২০ | ২৫ আষাঢ় ১৪২৭

 
 
 
 

বরগুনায় জেলহত্যা দিবস পালিত

গ্লোবালটিভিবিডি ৮:০৯ অপরাহ্ণ, মে ২৯, ২০২০

ছবি সংগৃহীত

হিমাদ্রি শেখর কেশব, বরগুনা : বরগুনার মানুষের জন্য আজ শোকের দিন, স্বজন হারানোর দিন। ১৯৭১ সালের ২৯ ও ৩০ মে বরগুনার কারাগারে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছিলো ৭৬ জন মুক্তিকামী মানুষকে।

কুখ্যাত রাজাকার আজিজ মাষ্টারের নির্দেশে শান্তি কমিটির সদস্যরা গণহারে বরগুনার হিন্দু-মুসলমান নারী-পুরুষ ও শিশুদেরকে গ্রেফতার করে বরগুনার কারাগারে নিক্ষেপ করে। পরদিন নারী ও শিশুদেরকে ছেড়ে দিলেও পুরুষদের ছাড়েনি পাক হানাদার বাহিনীর দোসররা।

২৯ মে প্রথম রাজাকার আজিজ মাষ্টারের নেতৃতে পাকবাহিনীর সদস্যরা ৫৫ জন নিরীহ মানুষকে গুলি করে ও বেয়নেট দিয়ে হত্যা করে এবং ৩০ মে ২১ জনকে হত্যা করে। এরপর লাশগুলোকে কারাগারের অদূরে তিনটা ডোবা খনন করে সেখানে মাটিচাপা দেয়া হয়। গুলিতে মারা না যাওয়া গুরুতর আহত কেষ্ট ডাক্তার নামে এক বয়ষ্ক লোক বাঁচার জন্য শেষ চেষ্টা করতে গিয়ে ডোবা থেকে হামাগুড়ি দিতে দিতে যখন পাশের রাস্তায় উঠেছিলেন তখন লাশ টানায় সহযোগিতাকারী রাজাকার বাহিনীর সদস্যরা তাঁর মাথায় আঘাত করতে করতে মাথা থেঁতলে দিলে আজীবন মানুষকে সেবা প্রদানকারী কেষ্ট ডাক্তার পরপারে চলে যান। আরও নির্মমভাবে হত্যা করা হয়, বরগুনা -১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শমভুর পিতা ধৈর্যধর দেবনাথকেও ।

২৯ মে বরগুনার মানুষ জেলহত্যা দিবস হিসেবে পালন করে থাকে। বরগুনা খেলাঘর প্রতিবছর বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে দিবসটি পালন করে থাকে। কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিকেলে র‍্যালি বের করে বরগুনা শহর প্রদক্ষিণ করে শহীদ স্মৃতিসৌধে গিয়ে শহীদদের সম্মানে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে।

এমএস


oranjee