ঢাকা, রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ |

 
 
 
 

মঙ্গলবার জন্মাষ্টমী

দিনটি সরকারি ছুটি

গ্লোবালটিভিবিডি ৩:৪২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১০, ২০২০

ফাইল ছবি

করোনা ভাইরাসের কারণে এবার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের উৎসব জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রা বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে শ্রী শ্রী জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ-বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটি।

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) অনাদিরাদি গোবিন্দ শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূজা-প্রার্থনার মধ্য দিয়ে উদযাপিত হবে।

জন্মাষ্টমীর দিনটি সরকারি ছুটি হিসেবে ঘোষিত রয়েছে।

জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক বিমল কান্তি দে বলেন, এ দিন শুধু মন্দিরে পরম প্রেমময় ভগবান শ্রীকৃষ্ণের পূজা অনুষ্ঠিত হবে। জন্মাষ্টমী উৎসবের খরচের অর্থ দিয়ে হত-দরিদ্র, নিম্ন-মধ্যবিত্ত অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হবে।

সম্প্রতি চট্টগ্রামের জেএম সেন হলে সংগঠনের প্রধান কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

জন্মাষ্টমী পরিষদের উদ্যোগে তিন দিনব্যাপী অনুষ্ঠানসূচির মধ্যে রয়েছে- ১১ আগস্ট সকাল ১০টায় বিভিন্ন অনাথ আশ্রমে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ, সন্ধ্যা ৭টায় গীতাপাঠ ও সন্ধ্যারতি, ৮টায় দেশ, জাতি ও বিশ্বমানবের মঙ্গল কামনায় সমবেত প্রার্থনা, রাত ১২টায় ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পূজা। ১২ আগস্ট সন্ধ্যা ৭টায় গীতাপাঠ ও সন্ধ্যারতি, ৮টায় পঞ্চতত্ত্ব ভজন ও নামসংকীর্ত্তন। ১৩ আগস্ট দুপুর ১২টায় শ্রীশ্রী কৃষ্ণের ভোগ ও পূজা, সন্ধ্যা ৭টায় গীতাপাঠ, সন্ধ্যারতি ও নামসংকীর্ত্তন।

সনাতন ধর্মশাস্ত্র মতে বলা হয়, ভগবান বিষ্ণুর অষ্টম অবতার শ্রী কৃষ্ণ কারাগারে জন্ম নিয়েছিলেন মাতা দেবকীর গর্ভে ৷ কৃষ্ণ জন্মের শুভ তিথিটিই ঘরে ঘরে জন্মাষ্টমী রূপে পালিত হয় ৷

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বিশেষত বৈষ্ণবদের কাছে জন্মাষ্টমী একটি গুরুত্বপূর্ণ উৎসব। উত্তর ভারতে খুবই জনপ্রিয় জন্মাষ্টমী পুজা। জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বিভিন্ন জায়গায় ধুমধাম করে পালন হয় দহিহান্ডি উৎসব। দহি হান্ডি উৎসবে ছোটরা মিলে উঁচু কোন জায়গায় বেঁধে রাখা মাখনের হাঁড়ি ভাঙতে চেষ্টা করে।

জন্মাষ্টমীর দিনে ঘরে ঘরে দুধ-ঘি-মধুতে স্নান সেরে নতুন জামা, গয়না পরে, ফুল-চন্দন-আতরে সেজে ওঠেন গোপাল। আদরের গোপালের জন্য সাজানো হয় ভোগের থালা। পোলাও থেকে লুচি, পায়েস থেকে লাড্ডু, নাড়ু, চকোলেট ইত্যাদি ৷

এএইচ/জেইউ

 


oranjee