ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই ২০২০ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৭

 
 
 
 

যেভাবে রান্না করবেন পেঁয়াজ ছাড়া হাঁসের মাংস

গ্লোবালটিভিবিডি ১২:৪১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০১৯

ছবি সংগৃহীত

চড়া দামের কারণে রান্না-বান্নায় পেঁয়াজ নেই? তবুও ঘরে থাকা অন্যান্য উপকরণ দিয়ে বানিয়ে ফেলতে পারেন দেশি স্বাদের অনেক মজাদার রান্না৷ জেনে নিন পেঁয়াজ ছাড়া হাঁসের মাংস কিভাবে রান্না করবেন।

১. পরিমাণ মতো হাঁসের মাংস
২. আদা বাটা
৩. ধনের গুড়া
৪. গরম মসলা বাটা
৫. জিরা বাটা
৬. হলুদ গুড়া
৭. লবণ
৮. শুকনো মরিচ বাটা
৯. তেজপাতা
১০. দারুচিনি
১১. এলাচ
১২. চুইঝাল
১৩. নারকেলের দুধ

রান্নার প্রক্রিয়া :

হাঁসের মাংস কাটার পর ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর সামান্য আগুনের তাপে কড়াইতে আদা বাটা, ধনের গুড়া, গরম মসলা বাটা, জিরা বাটা, হলুদ, লবণ, মরিচ বাটা পরিমাণ মতো তেলে ভাজতে হবে। ভাজার সময় মসলার মিশ্রণটি যেন পুড়ে না যায়, তার জন্য সামান্য পানি দিয়ে মসলাটা কসিয়ে নিতে হবে। মসলা কসানো হলে তার মধ্যে হাঁসের মাংস দিয়ে দেবেন।

এরপর চুলায় আগুনের তাপ বাড়িয়ে দিয়ে মাংসটা নাড়াচাড়া করতে হবে যাতে ভালো করে মসলার সঙ্গে মিশে যায়। এসময় মাংস থেকে যে পানি বের হবে সেটা শুকিয়ে নিতে হবে।

পানি শুকিয়ে যাওয়ার পর, নারকেলের দুধটা দিতে হবে। তারপর নারকেলের দুধটা দিয়ে মাংসটা কড়া করে কসিয়ে নিবেন। কসাতে কসাতে নারকেলের দুধটা শুকিয়ে তেল বেরিয়ে গেলে তখন ঝোলের জন্য পরিমাণ মতো পানি দিতে হবে।

ঝোলের পানিটা যখন ফুটে উঠবে তখন চুইঝাল বাটা, তেজপাত, দারুচিনি ও ৪/৫টা এলাচ থেতলে দিতে হবে। তারপর মাংসটা নরম হওয়া পর্যন্ত চুলায় আগুনের তাপ দিতে হবে।

মাংসটা নরম হয়ে গেলে, অল্প ঝোল বা মাংসের গা মাখা মাখা শুকনো করতে পারেন। তরকারি নামিয়ে শুকনা কড়াইতে তেল ছাড়া জিরা ভেজে গুড়া করে মাংসের তরকারির উপর ছড়িয়ে দিতে হবে। এভাবেই তৈরি হয়ে যাবে নারকেলের দুধের হাঁসের মাংস।

এই মাংশটা খেতে খুব মজাদার। স্বাদটা মুখে লেগেই থাকবে আর নারকেলের দুধে হাঁসের মাংস হজমের বা শরীরের কোনো ক্ষতি করবে না।

 মৃত্তিকা দেবনাথ

 

আরকে


oranjee