ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ | ১২ জ্বিলকদ ১৪৪৫

ভোলায় আরও একটি কূপে গ্যাসের সন্ধান

ভোলায় আরও একটি কূপে গ্যাসের সন্ধান

ছবি: গ্লোবাল টিভি

মোঃ অনিক আহাম্মদ, ভোলা: বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রডাকশন কোম্পানি লিমিটেডের (বাপেক্স) তত্ত্বাবধানে ভোলা নর্থ-২ কূপ খনন করছে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় কোম্পানি গ্যাজপ্রম। গত ডিসেম্বর থেকে এ কূপে খননকাজ শুরু হওয়ার পর দৈনিক ২০ মিলিয়ন ঘনফুট হারে গ্যাস পাওয়া গেছে।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ থেকে এসব তথ্য জানানো হয়।

নর্থ-২ কূপ ছাড়াও দক্ষিণাঞ্চলের এ জেলায় আরও কয়েকটি গ্যাসক্ষেত্র পায় বাপেক্স। এখন পর্যন্ত ৮ টি কূপে গ্যাসের সন্ধান পাওয়া গেছে। এ পর্যন্ত দ্বীপজেলায় মোট মজুদের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ দশমিক ৫ টিসিএফ ঘনফুট গ্যাস।

সোমবার ভোলা সদরের পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নের দক্ষিণ চরপাতা গ্রামে এ কূপের সন্ধান পায় বাপেক্স। সংস্থার প্রধান প্রকৌশলী মো. আলী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, দেশিয় জ্বালানির উৎস অনুসন্ধানে সরকার আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করছে। এর হিসেবে বাপেক্সের তত্ত্বাবধানে গ্যাজপ্রমের মাধ্যমে টবগী-১, ভোলা নর্থ-২ এবং ইলিশা-১ তিনটি কূপ খনন কার্যক্রম দ্রুম শেষ করার পদক্ষেপ নেওয়া হয়। ২০২২ সালের ৫ ডিসেম্বর ভোলা নর্থ-২ কূপে কার্যক্রম শুরু হয়। পর্যায়ক্রমে মাটির ৩ হাজার ৪২৮ মিটার গভীরতায় খনন কাজ শেষ হয়। কূপের ডিএসটি শেষ করলে গ্যাসের সন্ধান পাওয়া যায়। এ কূপ থেকে প্রতিদিন ২০ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন সম্ভব। এখানে কত পরিমাণ গ্যাসের মজুদ রয়েছে আগামী ৭২ ঘণ্টায় জানা যাবে।

এর আগে গত ৭ জানুয়ারি শাহবাজপুর গ্যাস ক্ষেত্র পরিদর্শনে এসে বাপেক্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আলী বলেছিলেন, ভোলাসহ দক্ষিণাঞ্চলে বিপুল তেল-গ্যাসের সম্ভাবনা রয়েছে। এ সম্ভাবনা যাচাই করতে ভোলাসহ দক্ষিণাঞ্চলের ১০ জেলায় তেল গ্যাস অনুসন্ধান করবে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন। জরিপ কাজে ব্যয় হবে ২৬৬ কোটি টাকা। প্রকল্পটি অনুমোদন হলেই আগামী অক্টোবর থেকে কাজ শুরু করবে বাপেক্স।

নতুন করে তেল-গ্যাস পাওয়া গেলে নতুন সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন হতে পারে দক্ষিণাঞ্চলের জেলাগুলোয়। 

প্রসঙ্গত, ১৯৯৪-৯৫ সালে ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার শাহবাজপুরে প্রথম গ্যাস আবিষ্কার হয়। পর্যায়ক্রমে সেখানে পাঁচটি ও জেলার আরও ৩টি স্পটে কূপ খনন করে বাপেক্স। চলতি বছর জুলাইয়ে আরও একটি কূপ খনন করবে সংস্থাটি

এছাড়া জেলার চরফ্যাশন থেকে নিঝুম দ্বীপ পর্যন্ত ১২ এলাকায় গ্যাসের সম্ভাব্যতা যাচাই করতে ভূ-কম্পন বা সিসমিক জরিপ করবে বাপেক্স। সেখানেও বিপুল পরিমাণ গ্যাস পাওয়া আশা করছে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন।

এএইচ