ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ | ১৭ মাঘ ১৪২৯ | ৯ রজব ১৪৪৪

সাপাহারে প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় ১২ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার

সাপাহারে প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় ১২ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার

ছবি: গ্লোবাল টিভি

কাজী কামাল হোসেন, নওগাঁঃ নওগাঁর সাপাহারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক উদ্বোধনের অপেক্ষায় নির্মিত বীর নিবাসগুলো প্রস্তুত হয়েছে। মুজিব বর্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে অস্বচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ১২টি অস্বচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জন্য ‘বীর নিবাস’ এখন পুরোপুরি প্রস্তুত।

জানা যায়, সারাদেশে নির্মিত বীর নিবাসগুলো একযোগে আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপরই বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের মধ্য হস্তান্তর করা হবে নির্মিত বীর নিবাসগুলো। 

এদিকে,‘বীর নিবাস’ নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার খবরে সংশ্লিষ্টদের মধ্যে খুশির আমেজ বিরাজ করছে। অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় আছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যরা। প্রথম পর্যায়ে এ উপজেলায় ১২জন বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জন্য প্রস্তুত হয়েছে ১২ টি বীর নিবাস। পর্যায়ক্রমে সরকারিভাবে সকল মুক্তিযোদ্ধাদের আবাসন সমস্যা দূরীকরণের জন্য ‘বীর নিবাস’ তৈরি করে দেওয়া হবে বলে সূত্র জানিয়েছে।

উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নে নির্মিত বীর নিবাসগুলো পরিদর্শন করেছেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান হোসেন মন্ডল ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আব্দুল্যাহ আল মামুন, উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী মোল্লা, এলজিইডি প্রকৌশলী তাহাজ্জদ হোসেন, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রকৌশলী খাদিজা আক্তার ছিলেন।

জানা গেছে, তালিকাভুক্ত অস্বচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ১২টি বীর নিবাস নির্মান কাজ সম্পন্ন হয়েছে। নির্মিত দৃষ্টিনন্দন পাকা ছাদ ঢালাইয়ের প্রতিটি বীর নিবাসে রয়েছে পানীয় জলের সুব্যবস্থাসহ তিনটি বেড রুম, একটি গেস্ট রুম, দুইটি বাথরুম ও একটি কিচেন রুম।

‘বীর নিবাস’র জন্য চূড়ান্ত বীর মুক্তিযোদ্ধারা হলেন-মোঃ মাবুদ বক্স, আব্দুস ছাত্তার, তমিজ উদ্দীন মন্ডল, আল্লা নেওয়াজ, মৃত আজিম উদ্দীন, মোঃ আবুল হোসেন, আব্দুল অহেদ, মোঃ সাদেকুল ইসলাম, মোঃ মোসলেম, মোঃ জিল্লুর রহমান, মোঃ বানী ইসরাইল বনি ও মোঃ আলাউদ্দীন।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সূত্রে জানা যায়, অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের আবাসন নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় এ উপজেলায় ১২ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের জন্য আবাসনের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১ কোটি ৬৯ লাখ ২০ হাজার টাকা। প্রতিটি আবাসন নির্মাণের জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ১৪ লাখ ১০ টাকা।

এএইচ