ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ | ১৭ মাঘ ১৪২৯ | ৯ রজব ১৪৪৪

হিলিতে সড়ক উন্নয়নে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ

হিলিতে সড়ক উন্নয়নে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ

ছবি: গ্লোবাল টিভি

মো. লুৎফর রহমান, হিলি (দিনাজপুর) : প্রায় ৩৪ কোটি টাকা ব্যয়ে দিনাজপুরের হিলি চেকপোস্ট থেকে মহিলা কলেজ পর্যন্ত ২ কিলোমিটার সড়কের চার লেন করার কাজ শুরু হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে সড়কের সোলিং কাজ এবং সড়কের দুইপাশে ড্রেন নির্মাণে নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয়দের মাঝে কাজের মান নিয়ে নানা প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।

সরজমিনে দেখা যায়, বন্দরের জিরো পয়েন্ট থেকে মহিলা কলেজ পর্যন্ত দুই কিলোমিটার সড়ক উন্নয়নে আরসিসি ঢালাইযুক্ত ফোর লেন করা এবং সড়কের উভয় পাশে ১ মিটার করে ৪৪ শ’ মিটার ড্রেন নির্মাণ করা হবে। ২০১৯ সালে এই প্রকল্প পাস হলেও কাজ শুরু হয় চলতি বছরের অক্টোবরে। 

ঢাকার ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ইঞ্জিনিয়ার্স নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান বন্দরের পানামা পোর্টের সামনে থেকে ফোর লেন সড়কের সোলিং কাজ শুরু করে।পাশাপাশি এই প্রকল্পের আওতায় ১ মিটার চওড়া ড্রেন নির্মাণ করা হচ্ছে। কিন্তু ভারতীয় পণ্যবাহী ট্রাকসহ ভারী যানবাহন চলাচলে এর মান নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। দিনাজপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগ এই ফোর লেন রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণ কাজ তদারক করছে।

হিলি চারমাথার বাসিন্দা টিপু, মান্নান ও শাহিন চৌধুরী জানান, হিলি স্থলবন্দরে ভারতীয় পণ্যবাহী ভারী ট্রাকের পাশাপাশি বাংলাদেশি যানবাহন চলাচল করে। এ কারণে সরকার ফোর লেন সড়ক নির্মাণ করছে। এই সড়কে আরসিসি ঢালাই দিয়ে নির্মাণ করতে ১নং ইটের খোয়া ও গুণগত মানের বালু দিয়ে সোলিং করার কথা। যা রোলার দিয়ে মজবুত ভাবে ডলা দেয়ার নিয়ম। টেন্ডারেও তাই উল্লেখ আছে। কিন্তু কাজের শুরুতেই নিম্নমানের ইটের খোয়া ও মাটিযুক্ত বালু দিয়ে সোলিং করা হচ্ছে। ঠিকমত রোলার দিয়ে সোলিং দাবানো হচ্ছে না। আবার কাদাপানি অপসারণ না করেই পূর্বের ড্রেনের উপর ড্রেন নির্মাণ করা হচ্ছে।

তারা আরও অভিযোগ করেন, কয়েকদিন আগে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে এসব কাজ করা হলে পরে স্থানীয়দের বাধার কারণে তা সরিয়ে নিতে বাধ্য হয় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানটি। 

এদিকে, অভিযোগ অস্বীকার করে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের প্রকল্প ম্যানেজার মুনসুর আলম বলেন, নিম্নমানের ইটগুলো ফেরত পাঠানো হয়েছে। অন্যান্য কাজ ঠিকমতো করা হচ্ছে। ৪ হাজার ৪০০ মিটার ড্রেন নির্মাণের মধ্যে ২ হাজার ৭০০ মিটার ড্রেন নির্মাণ হবে। বাকি ১৭০০ মিটার ড্রেন কোথায় হবে তা আমি জানি না। ৩৪ কেটি টাকা ব্যয়ে ফোরলেন রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণ করা হচ্ছে।

দিনাজপুর সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী কর্মকর্তা অনফ সরকার বলেন, নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ হচ্ছে, বিষয়টি জানলাম। সরেজমিনে গিয়ে বিষয়টি দেখা হবে।

এএইচ