ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ | ১৭ মাঘ ১৪২৯ | ৯ রজব ১৪৪৪

বরগুনায় চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের পিপিই রান্নাঘরে!

বরগুনায় চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের পিপিই রান্নাঘরে!

ছবি: গ্লোবাল টিভি

হিমাদ্রি শেখর কেশব, বরগুনা : করোনায় হাসপাতালের চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য দেয়া সুরক্ষা সরঞ্জামাদি (পিপিই) অযত্নে ফেলে রাখা হয়েছে হাসপাতালের রান্নাঘরের জ্বালানী কাঠের গুদামে। 

এমনটাই ঘটেছে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে।  সরেজমিনে ওই হাসপাতালের রান্নাঘর সংলগ্ন জ্বালানি কাঠের খোলা গুদামে একটি প্লাষ্টিকের বস্তায় এবং এলোমেলো ফেলে রাখতে দেখা গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কোভিড-১৯ রোগীদের সেবাদানকারীদের সরকারি ভাবে ব্যাক্তিগত স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এ পিপিই সরবরাহ করা হয়েছিল।  হাসপাতালে সংরক্ষণ না করে পিপিইগুলো কেন পরিত্যাক্ত অবস্থায় ফেলে রাখা হয়েছে? জানতে চাইলে জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার মো: সোহরাব উদ্দিন বলেন, খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছি পৌরসভার হারুন নামের একজন পরিচ্ছন্নকর্মী কার্টন থেকে এগুলো ফেলে রেখে কার্টন নিয়ে বিক্রি করেছে।

এদিকে, বিষয়টি জানাজানি হবার পরে ৫০-৬০ পিস পিপিই সরিয়ে ফেলা হয়েছে। তবে বিষয়টি সামাজিক মাধ্যমে প্রচার হওয়ায় সমালোচনা শুরু হয়েছে। 

জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সভাপতি হাসানুর রহমান ঝন্টু বলেন, গুরুত্বপূর্ণ এই সরঞ্জামাদি গুদামে সংরক্ষিত না হয়ে পরিত্যাক্ত অবস্থায় পড়ে রইলো। এটা দায়িত্বের অবহেলা। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোনভাবেই তাদের এই দায় এড়াতে পারে না। 

বরগুনার সিভিল সার্জন ডাক্তার ফজলুল হক বলেন, পিপিই সরকার আমাদের সুরক্ষার জন্য দিয়েছে। এগুলো সরকারি সম্পদ। সব কিছুর হিসাব দিতে হবে। অরক্ষিত বা ফেলে দেবার কোন সুযোগ নেই।

এএইচ