ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ |

 
 
 
 

রাজধানীতে ভুয়া তথ্য সন্দেহে ১৭টি এনআইডি ব্লক

গ্লোবালটিভিবিডি ১১:৪৮ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০

ফাইল ছবি

রাজধানীর গুলশান ও সবুজবাগ থানা নির্বাচন অফিসের ডাটা এন্ট্রি অপারেটরের জাল জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) তৈরি এবং এর মাধ্যমে ব্যাংক থেকে ঋণ নেয়ার ঘটনা তদন্তে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। এ বিষয়ে সংস্থার জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের পক্ষ থেকে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে। আর ভুয়া তথ্য সন্দেহে ব্লক করা হয়েছে ১৭টি এনআইডি।

এছাড়া আজ মঙ্গলবার থেকে রাজধানীর প্রতিটি থানা নির্বাচন অফিসে জাতীয় পরিচয় সংক্রান্ত সেবা প্রদান কার্যক্রম পর্যবেক্ষণে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করা হবে বলে জানা গেছে।

সোমবার বিকেলে জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগ ও আইডিয়া প্রকল্পের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে এ অনুবিভাগের মহাপরিচালক এবং প্রকল্পের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুল ইসলামের নেতৃত্বে এক জরুরি বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

আইডিয়া প্রকল্পের অফিসার ইনচার্জ স্কোয়াড্রন লিডার কাজী আশিকুজ্জামান জানান, এনআইডি উইংয়ের অপারেশন শাখা, আইটি বিভাগ এবং আইডিয়া প্রকল্পের প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে চার কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি মিথ্যা তথ্যে প্রস্তুত করা হয়েছে, এমন সন্দেহে ১৭টি এনআইডি সাময়িকভাবে ব্লক করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া সাপেক্ষে পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে।

এর আগে গত রবিবার জাল এনআইডি তৈরির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে গোয়েন্দা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার সবুজবাগ ও গুলশান থানা নির্বাচন অফিসে আউটসোর্স ডাটা এন্ট্রি অপারেটর সিদ্ধার্থ শঙ্কর সূত্রধর ও আনোয়ারুল ইসলামকে সাময়িকভাবে অব্যাহতি দিয়েছে নির্বাচন কমিশনের আইডিয়া প্রকল্প।

তদন্তে দোষী সাব্যস্ত হলে প্রকল্পের এই দুই ডাটা এন্ট্রি অপারেটরকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে।

এএইচ/জেইউ

 


oranjee