ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ |

 
 
 
 

প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়ে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান বাইডেনের

গ্লোবালটিভিবিডি ২:৫৩ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২১, ২০২১

ছবি সংগৃহীত

সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন জো বাইডেন ও প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস। শপথ নিয়েই প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথম ভাষণে আমেরিকাকে ঐক্যবদ্ধ রাখা ও গণতন্ত্রকে ঊর্ধ্বে তুলে ধরার জন্য সবার ভূমিকা চান।

শান্তিপূর্ণভাবেই রাজধানী ওয়াশিংটনের ক্যাপিটল হিলে শপথ নেন ৭৮ বছর বয়সী নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস, তাও আবার এশিয়ান-আমেরিকান কৃষ্ণাঙ্গ। বাইডেন আমেরিকার ইতিহাসে সবচেয়ে বয়স্ক প্রেসিডেন্ট হলেন।

দুশ্চিন্তা বেশি ছিল সদ্য ক্ষমতা ত্যাগ করা প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উগ্র সমর্থকদের সশস্ত্র হামলার আশঙ্কার কারণে। এই উদ্বেগ হবার কারণ হল গত ৬ জানুয়ারী কংগ্রেস অধিবেশন চলার সময় ক্যাপিটল হিলে ট্রাম্প সমর্থকদের সশস্ত্র হামলার ঘটনা, যেখানে একজন পুলিশসহ পাঁচজন নিহত হন। ফলে শপথের জন্য নজিরবিহীন নিরাপত্তার আয়োজন করা হয় দেশজুড়ে।

বাংলাদেশ সময় বুধবার রাত পৌনে ১১ টার দিকে ১২৭ বছরের পুরাতন পারিবারিক বাইবেল ছুঁয়ে শপথ নেন বাইডেন। পাশে ছিলেন তাঁর স্ত্রী, নতুন ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেন। তাঁর আগে শপথ নেন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস।

পূর্ব ঘোষণা অনুসারে শপথ অনুষ্ঠানে ছিলেন না ট্রাম্প, যা দেড়শ বছর পর ঘটলো গণতান্ত্রিক, সহনশীল রাজনীতির দেশ হিসেবে দাবি করা আমেরিকায়। তবে ছিলেন ট্রাম্পের সদ্য বিদায়ী ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। সীমিত আকারে আয়োজন করা শপথ অনুষ্ঠানে ছিলেন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, বিল ক্লিনটন, জর্জ ডব্লিউ বুশ ও সাবেক কয়েকজন ফার্স্ট লেডি এবং আমন্ত্রিত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ।

শপথ নিয়ে প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেয়া প্রথম ভাষণে বাইডেন ঐক্যবদ্ধ আমেরিকা ও গণতন্ত্রকে মর্যাদার জায়গায় রাখার জন্য আকুতি প্রকাশ করেন। আমেরিকাকে তাঁর সেরাটা দেবার প্রতিশ্রুতি দেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর যুক্তরাষ্ট্র সবচেয়ে সংকটময় সময় পার করছে উল্লেখ করে বর্ণবাদ, সন্ত্রাসবাদসহ সকল মন্দের বিরুদ্ধে লড়াই ও বিজয় অর্জনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

শপথের ঘন্টা চারেক আগে হোয়াইট হাউজ ছেড়ে যান ট্রাম্প। 

এমএস/জেইউ 


oranjee