ঢাকা, শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ |

 
 
 
 

পুলিশি হত্যার প্রতিবাদে উত্তাল কলম্বিয়ায় নিহত ৭

গ্লোবালটিভিবিডি ২:১৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০২০

ফাইল ছবি

করোনাভাইরাসের কারণে মার্চের শেষ থেকে কলম্বিয়ায় কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়। প্রায় ছয় মাস পর ১৫ দিন আগে কঠোরতা কিছুটা শিথিল করা হয়। বিধি-নিষেধ অমান্যের অভিযোগে বুধবার ভোরে জেভিয়ার হাম্বারতো অরডোনেজ নামের ওই আইনজীবীকে আটক করে পুলিশ। তার সঙ্গে থাকা এক বন্ধুর পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা গেছে, পুলিশ হাঁটু দিয়ে তার গলা চেপে ধরেছে আর দুই সন্তানের পিতা অরডোনেজ গলা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে বলে চিৎকার করে ছেড়ে দেয়ার অনুরোধ করছেন। পরে তাকে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ। পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ হেফাজতে নেয়ার পরও তাকে নির্যাতন করা হয়। পরে হাসপাতালে নেয়ার পর মৃত্যু হয় তার।

ওই ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়ার পর বুধবার বিকেল থেকেই কলম্বিয়ার রাজধানী বোগোতার রাজপথে নামতে শুরু করে মানুষ। কিছুক্ষণের মধ্যেই পুড়িয়ে দেয়া হয় অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তাদের থানাটি। তারপরও ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়তে থাকে বিক্ষোভ ও সহিংসতা। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্তও বিস্তৃত হতে থাকে এসব সহিংসতা ও বিক্ষোভ। রাজধানী ছাড়াও মেদেলিন, পেরেইদা, ইবাগ শহরেও বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। এসব শহরের থানাতেও হামলার ঘটনা ঘটে।

পুলিশের বর্বরতাকে অগ্রহণযোগ্য আখ্যা দিয়েছেন বোগোতার মেয়র ক্লদিয়া লোপেজ। একই সঙ্গে বোগোতায় সহিংসতারও নিন্দা জানিয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার সকালে এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘গতকাল পুলিশের নিপীড়নে এক নাগরিকের মৃত্যুর জেরে যৌক্তিক কারণে বেদনা আর বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। কিন্তু আজ কেবল একজন নয় তিনজন নিহত হয়েছেন।’

পরে কলম্বিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী কার্লোস হোমস ত্রুজিলো জানান, বৃহস্পতিবারের দাঙ্গায় বোগোতায় সাতজন নিহত হয়েছেন আর দেশ জুড়ে দেড়শ’র বেশি বেসামরিক নাগরিক ও পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

এমএস/জেইউ


oranjee