ঢাকা, বুধবার, ৫ আগস্ট ২০২০ | ২১ শ্রাবণ ১৪২৭

 
 
 
 

ভারতের প্রতিরক্ষায় যুক্ত হলো রাফালে যুদ্ধবিমান

গ্লোবালটিভিবিডি ৫:২২ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩১, ২০২০

রাফালে যুদ্ধবিমান। ছবিঃ সংগৃহীত

অবশেষে ভারতে এসে পৌঁছল ‘বিউটি অ্যান্ড বিস্ট’ রাফালে (Rafale Jets) যুদ্ধ বিমান। বুধবার দুপুরে সেদেশের হরিয়ানা রাজ্যের বিমানবাহিনীর ঘাঁটিতে অবতরণ করে বিমানগুলো। ইউরোপের দেশ ফ্রান্স থেকে সাত হাজার কিলোমিটার পথ পেরিয়ে ভারতের মাটি ছুঁল এসব 'গেম চেঞ্জার’ মাল্টিরোল ফাইটার এয়ারক্রাফ্টস। চিনের সঙ্গে সংঘর্ষের এমন পরিস্থিতিতে ভারতীয় বিমানবাহিনীতে রাফালের অন্তর্ভুক্তি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ মনে করা হচ্ছে।

ভারতে যুক্ত হওয়া ৫টি রাফালে হলো- মিরাজ ২০০০ (Miraj 2000), সুখোই ৩০ (Sukhoi 30), মিগ ২৯ (MIG 29), মিগ ২১ বাইসন (MIG 21 Bison), তেজস (Tajas)। 

সাম্প্রতিককালে চিনের সঙ্গে ভারতের লাদাখ সীমান্তে টানাপোড়েন চলছেই। আবার চিনের সঙ্গে গলা মিলিয়ে রণ হুঙ্কার দিচ্ছে পাকিস্তানও। এমন পরিস্থিতিতে চিনের সেনার হাতে রয়েছে জে-২০, জে-১৬, জে-১১-এর মতো একাধিক ফিফথ জেনারেশন যুদ্ধ বিমান। সম্প্রতি ভারতীয় বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তাদের সঙ্গে চোখে চোখ রেখে টক্কর দিতে পারবে  এসব রাফালে ফাইটার জেট। বরং চিনের যুদ্ধবিমানগুলোর চেয়ে কয়েক ধাপ এগিয়ে ফরাসি বিউটি অ্যান্ড দি বিস্ট(রাফালে ফাইটার জেট)। কারণ, চিনের অধিকাংশ যুদ্ধ বিমান যুদ্ধ ক্ষেত্রে পরীক্ষা দেয়নি। অথচ রাফালের ক্ষমতা সারা বিশ্বে স্বীকৃত। ফলে বর্তমান পরিস্থিতিতে পাকিস্তান ও চিনকে জবাব দিতে কোমর বেঁধে তৈরি রাফালে বাহিনী। রাফালের বিধ্বংসী ক্ষমতা বাড়াতে যুক্ত হয়েছে দু'টি ক্ষেপণাস্ত্র। খুব শীঘ্রই ফ্রান্স থেকে আসছে হ্যামারও। সব মিলিয়ে আগামী সাতদিনের মধ্যে রণ সজ্জায় সেজে উঠছে ফ্রান্সের বিউটি অ্যান্ড বিস্ট।  

আগে থেকেই নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছিলো হরিয়ানার বিমানঘাঁটির আশ-পাশের এলাকা। হরিয়ানার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল ভিজ এ প্রসঙ্গে বলেন, 'রাফালে জেট আম্বালা ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় থাকবে। এটা খুবই গর্বের ও ঐতিহাসিক মুহূর্ত। ভারতীয় বিমান সেনার সিকান্দর হলো রাফালে জেট যা দেশের বাহিনীর ক্ষমতা আরও বাড়িয়ে তুলবে।'

সোমবার ফ্রান্সের মেরিগন্যাক এয়ারবেস থেকে রাফালের পাঁচটি বিমান নিয়ে রওনা দেন ভারতীয় পাইলটরা। পাঁচটি জেটের মধ্যে তিনটি এক আসন বিশিষ্ট ও দু'টি দুই আসনের। ফ্রান্স যে ছয়টি যুদ্ধবিমান ভারতে পাঠাচ্ছে সেগুলো সব সমরাস্ত্রে সজ্জিত। এগুলোতে মিসাইল আগে থেকেই লাগানো রয়েছে বলে জানা গেছে। প্রায় ১৫০ কি.মি. দূরে থাকা যেকোনও শত্রু যুদ্ধবিমানকে মুহূর্তে ধ্বংস করে দেয়ার ক্ষমতা রাখে এই মিসাইলগুলো। ভারত এবং চিনের সংঘাতের পরিস্থিতিতে পুরোপুরি যুদ্ধের জন্যে প্রস্তুত করেই রাফালেগুলো পাঠানো হচ্ছে। 

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে ভারত ৩৬টি রাফালে অর্ডার দেয় ফ্রান্সের কাছে। দাম পড়েছে ৫৮ হাজার কোটি টাকা। এই রাফালে ঘিরে একাধিক বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। গত লোকসভা নির্বাচনে রাফালে নিয়ে আর্থিক তছরুপ হয়েছে বলে অভিযোগে উঠেছিলো সেদেশে। তথ্যসূত্রঃ সংবাদ প্রতিদিন, এই সময়।

জেইউ


oranjee