ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০ | ১২ চৈত্র ১৪২৬

 
 
 
 

তাজমহল দেখে অভিভূত ট্রাম্প-মেলানিয়া!

গ্লোবালটিভিবিডি ১০:৪১ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০

ছবি সংগৃহীত

দুদিনের ভারত সফরের প্রথম দিনেই তাজমহল দেখতে যান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া। জানা যায়, তাজমহলের সৌন্দর্য দেখে অভিভূত হয়েছেন ট্রাম্প।

তাঁরাও অন্য সবার মতো ঘুরে ঘুরে দেখেন দিল্লির অধিপতি মোগল সম্রাট শাহজাহানের প্রেমের সৌধ। মুগ্ধ হয়ে দেখলেন মোগল স্থাপত্যের ঐতিহাসিক স্থাপত্যশৈলী-কারুকাজ। পড়ন্ত বিকেলে হাতে হাত রেখে তাজমহলের চতুর্দিকে হাঁটলেন ট্রাম্প দম্পতি। ফ্রেমবন্দি করলেন সে স্মৃতিও।

তবে শেষ ইচ্ছেটা পূরণ হল না! সম্রাট শাহজাহানের প্রিয়তমা বেগম মমতাজের সমাধির কাছে পৌঁছতে পারলেন না তিনি! বাধা হয়ে দাঁড়াল তাঁর উচ্চতা। খবর এনডিটিভির।

সোমবার বেলা ১১টা ৩৭ মিনিটে সপরিবারে ভারতের মাটিতে পা রাখেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সবরমতী আশ্রম, মোতেরা স্টেডিয়াম ঘুরে আগ্রার উদ্দেশে রওনা দেন তিনি।

বিকাল ৪টার কিছু আগে সপরিবারে আগ্রায় পৌঁছান ট্রাম্প। আগ্রা বিমানবন্দরে তাঁকে স্বাগত জানান উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এবং রাজ্যপাল আনন্দীবেন প্যাটেল।

স্ত্রী, মেয়ে এবং জামাইকে সঙ্গে নিয়ে বিমানবন্দর থেকে বিশেষ যান দ্য বিস্ট-এ চড়ে তাজমহলে পৌঁছান ট্রাম্প।

প্রেমের সৌধের ভিজিটরস বুকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট লেখেন, প্রেরণা দেয় তাজমহল। সবার সম্ভ্রম আদায় করে নেয় প্রেমের স্মৃতিসৌধ। ভারতের বৈচিত্র্যময় ঐতিহ্যের সাক্ষী এই তাজমহল। ভারতকে ধন্যবাদ।

তাজমহল দর্শনে তাঁদের সঙ্গে থাকা গাইড নীতিন কুমার সিং আইএএনএসকে জানান, তাজমহলের সৌন্দর্য দেখে অভিভূত হয়ে গিয়েছিলেন ট্রাম্প। যদিও শাহজাহান এবং মমতাজের যে আসল সমাধি, সেখান পর্যন্ত তিনি পৌঁছাতে পারেননি। কারণ নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা রক্ষীরা জানান, আসল সমাধিতে যাওয়ার যে রাস্তা, তার উচ্চতা অনেক কম এবং সরু। যে কারণে ট্রাম্পের মাথায় আঘাত লাগার সম্ভাবনা ছিল। ট্রাম্পের উচ্চতা ৬ ফুট ৩ ইঞ্চি।

এএইচ


oranjee