ঢাকা, শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০ | ১২ চৈত্র ১৪২৬

 
 
 
 

বিকাশের টাকা আত্মসাৎ: প্রতারক চক্রের একজন আটক

গ্লোবালটিভিবিডি ১১:৩১ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১৪, ২০২০

ছবি সংগৃহীত

বিকাশের মাধ্যমে কেউ বড় অঙ্কের টাকা লেনদেন করলে তা প্রতারক চক্রকে জানিয়ে দিত অনেক দোকানি বা এজেন্ট। বিনিময়ে এজেন্টরা চক্রের কাছ থেকে কমিশন পেত। আর চক্রের সদস্যরা এজেন্টদের মাধ্যমে গ্রাহকের বিকাশ অ্যাকাউন্টের নম্বর পেয়ে বিকাশ অফিসের নম্বর ক্লোন করত। তারপর ফোন দিয়ে গ্রাহকদের বিভিন্ন কোড ডায়াল করতে বলা হতো অথবা মেসেজ দিয়ে বিভিন্ন লিঙ্ক পাঠানো হতো। গ্রাহকরা সেই কোডে ডায়াল করলেই বা লিঙ্কে ক্লিক করলেই তাদের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা চলে যেত প্রতারকদের হাতে।

এই প্রতারক চক্রের মূল হোতাকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। তার নাম মো: সোহেল আহম্মেদ (৩৬)।
শুক্রবার দুপুরে র‌্যাব-৩ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র্যাব-৩ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল রকিবুল হাসান।

তিনি বলেন, গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে মিরপুর-১ এর ১৯ নম্বর রোডের ৩৩ নম্বর বাসায় অভিযান চালিয়ে প্রতারক চক্রের মূল হোতা মো: সোহেল আহম্মেদকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ সিম কার্ড ও মাল্টি সিম গেটওয়ে ডিভাইসসহ মোবাইল জব্দ করা হয়। সেই সাথে তার কাছ থেকে একটি ল্যাপটপ, একটি সিগন্যাল বুস্টার, তিনটি মডেম, বিপুল পরিমাণ সিমকার্ড ও অন্যান্য সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সোহেল জানিয়েছে, ২০১৭ সাল থেকে সে এ প্রতারণার কাজে জড়িত। প্রতারণার মাধ্যমে সে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

অধিনায়ক আরো জানান, সোহেল তার চক্রের চার-পাঁচ জনের নাম বলেছে। তাদের নাম তদন্তের স্বার্থে বলা যাবে না। আমরা শিগগিরই তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাব।

প্রতারকরা মোবাইল ব্যাংকিং কোম্পানির নম্বর ক্লোন করে কল দিয়ে বলতÑ আমি মোবাইল ব্যাংকিংয়ের অফিস থেকে বলছি, আপনি যেই টাকা পাঠিয়েছেন বা এসেছে, সেই টাকা ভুল নম্বরে চলে গেছে। তারপর অনেক ভুয়া কৌশল অবলম্বন করে গ্রাহকদের বিভিন্ন কোড ডায়াল করতে বলত অথবা তারা মেসেজ দিয়ে বিভিন্ন লিঙ্ক পাঠাত। গ্রাহকরা সেই কোড বা লিঙ্কে ক্লিক করলেই প্রতারক চক্র টাকা নিয়ে নিত।

এএইচ


oranjee

আরও খবর :