ঢাকা, বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১ |

 
 
 
 

গীতিকার ফজল-এ-খোদা আর নেই

গ্লোবালটিভিবিডি ৯:৫২ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ০৪, ২০২১

ফাইল ছবি

‘সালাম সালাম হাজার সালাম’ কালজয়ী এ গানের গীতিকার ফজল-এ-খোদা আর নেই। আজ রবিবার (৪ জুলাই) ভোর ৪টায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা গেছেন। ৮১ বছর বয়সী এই গীতিকবি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। তিনি তিন পুত্র, স্ত্রী রেখে গেছেন। তাঁকে রায়ের বাজার কবরস্থানে দাফন করা হবে।

বাংলাদেশ বেতারের সাবেক পরিচালক ফজল-এ-খোদার জন্ম ১৯৪১ সালের ৯ মার্চ পাবনার বেড়া থানার বনগ্রামে। তাঁর বাবা মুহাম্মদ খোদা বক্স এবং মা মোসাম্মাৎ জয়নবুন্নেছা।

ফজল-এ-খোদা'র কর্মজীবন শুরু হয় বেতারের তালিকাভুক্ত গীতিকার হিসেবে ১৯৬৩ সাল থেকে। ১৯৬৪ সালে টেলিভিশনে তিনি তালিকাভুক্ত হন। শিশু-কিশোর সংগঠন শাপলা শালুকের আসরের প্রতিষ্ঠাতা ফজল-এ-খোদা ‘মিতা ভাই’ নামেও পরিচিত।

১৯৭১-এ অসহযোগ অন্দোলন চলাকালে তাঁর লেখা গণসংগীত ‘সংগ্রাম, সংগ্রাম, সংগ্রাম চলবে, দিন-রাত অবিরাম’ গানটি তৎকালীন টেলিভিশন প্রচার করে।

ফজল-এ-খোদা’র কালজয়ী গানের মধ্যে ‘যে দেশেতে শাপলা শালুক ঝিলের জলে ভাসে’, ‘ভালোবাসার মূল্য কত, আমি কিছু জানি না’, ‘কলসি কাঁধে ঘাটে যায় কোন রূপসী’, বাসন্তী রং শাড়ি পরে কোন রমণী চলে যায়’, আমি প্রদীপের মতো রাত জেগে জেগে’, ‘প্রেমের এক নাম জীবন’, ‘ভাবনা আমার আহত পাখির মতো, পথের ধুলোয় লুটোবে’ উল্লেখযোগ্য।

মূলত ছড়া দিয়ে তাঁর লেখালেখি শুরু। তাঁর ছড়াগ্রন্থ ১০টি আর কবিতাগ্রন্থ ৫টি। এছাড়াও গান, নাটক, প্রবন্ধ, শিশু সাহিত্য ইত্যাদি নিয়ে তাঁর সর্বমোট বইয়ের সংখ্যা ৩৩। সত্তর দশকে শিশু-কিশোরদের মাসিক পত্রিকা ‘শাপলা শালুক’ ফজল-এ-খোদা’র সম্পদনায় প্রকাশিত হতো।

বশীর আহমদের সুরারোপে মোহাম্মদ আবদুল জাব্বারের গাওয়া ফজল-এ-খোদার বিখ্যাত গান ‘ভাবনা আমার আহত পাখির মতো/ পথের ধুলোয় লুটোবে/ সাত রঙে রাঙা স্বপ্ন-বিহংগ / সহসা পাখনা লুটোবে/ এমন তো কথা ছিলো না’ ১৯৭৬ সালে বেতারে প্রচারিত হয়।

তাঁর লেখা ও মোহাম্মদ আবদুল জব্বারের সুরারোপ করা ‘সালাম সালাম হাজার সালাম’ গানটি ২০০৬ সালে বিবিসির সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাংলা গানের সেরা ২০টি গানের তালিকায় ১২তম (দ্বাদশ) স্থান পায়।

এএইচ/জেইউ 

 

 


oranjee