ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ |

 
 
 
 

ভারতে প্রথম দিন টিকা পেয়েছেন প্রায় ২ লাখ নাগরিক

গ্লোবালটিভিবিডি ১০:১৪ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১৮, ২০২১

ফাইল ছবি

দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম দেশ হিসেবে ভারতে করোনাভাইরাসের টিকা দেয়া শুরু হয়েছে। শনিবার প্রথম দিন দেশটিতে প্রায় ২ লাখ মানুষকে টিকা দেয়া হয়। টিকা কর্মসূচির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

ভারত সরকার করোনার টিকা দেয়ার লক্ষ্যে সে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে তিন হাজারের বেশি টিকা কেন্দ্র স্থাপন করেছে। কেন্দ্রগুলো থেকে দুইটি প্রতিষ্ঠানের টিকা দেয়া হয়। একটি সেরাম ইনস্টিটিউটে প্রস্তুত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ‘কোভিশিল্ড’, অন্যটি ভারত বায়োটেকের তৈরি ‘কোভ্যাক্সিন’ টিকা।

সেরাম পুনেভিত্তিক প্রতিষ্ঠান। অন্যদিকে, ভারত বায়োটেক হায়দরাবাদের প্রতিষ্ঠান। চলতি মাসের শুরুর দিকে ভারত সরকার ‘কোভিশিল্ড’ ও ‘কোভ্যাক্সিন’ টিকার অনুমোদন দেয়। প্রথম দিনে প্রতিটি কেন্দ্রে গড়ে ১০০ জনকে টিকা দেয়ার লক্ষ্য স্থির করা হয়। সে হিসাবে প্রথম দিনে প্রায় তিন লাখ মানুষকে টিকা দেয়ার লক্ষ্য স্থির করা হয়েছিল। কিন্তু দিন শেষে দেখা যায়, ১ লাখ ৯১ হাজার মানুষকে টিকা দেয়া সম্ভব হয়েছে।

সরকারি সূত্রগুলো বলছে, টিকা নেয়ার ক্ষেত্রে লোকজনের মধ্যে যথেষ্ট দ্বিধা-দ্বন্দ্ব রয়েছে। এ কারণে প্রথম দিনের লক্ষ্য পূরণ হয়নি।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় টিকাদান কর্মসূচি শুরু করেছে ভারত। প্রথম ধাপে সব ধরনের স্বাস্থ্যকর্মী ও বিভিন্ন জরুরি পরিষেবার সঙ্গে জড়িত দেশের মোট তিন কোটি মানুষকে বিনা মূল্যে টিকা দেয়ার কথা সরকার জানিয়েছে। পরের ধাপে ২৭ কোটি মানুষকে টিকা দেয়া হবে। দ্বিতীয় ধাপে বয়স্ক ও দীর্ঘ মেয়াদে বিভিন্ন রোগে ভোগা ব্যক্তিরা টিকা পাবেন।

এএইচ/জেইউ 


oranjee