ঢাকা, শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯ | ৯ ভাদ্র ১৪২৬

 
 
 
 

ব্রহ্মপুত্র, ঘাঘট নদীর পানি ঢুকে বন্যা কবলিত গাইবান্ধা শহর

গ্লোবালটিভিবিডি ১:৩৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৯, ২০১৯

সংগৃহীত ছবি

ব্রহ্মপুত্র, ঘাঘট নদীর পানি ঢুকে ত্রিশ বছর পর বন্যা কবলিত হয়েছে গাইবান্ধা শহর। উজানের পানির ঢল, বাধ ধসে গাইবান্ধা সদরসহ সুন্দরগঞ্জ, ফুলছড়ি, সাঘাটা ও সাদুল্যাপুর উপজেলার কয়েক লাখ মানুষ পানি বন্দী হয়ে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। এর আগে ১৯৮৮ সালে গাইবান্ধা শহরের পুরোটাই বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছিল।

গাইবান্ধার শহরের পাশে খোলাহাটী ইউনিয়নের গোদারহাট এলাকায় সোনাইল বাঁধের প্রায় ৩শ’ ফুট এলাকা ধসে পড়েছে। ফলে ত্রিশ বছর পর জেলা শহরে পানি ঢুকে পড়েছে ।

এরইমধ্যে শহরের পিকে বিশ্বাস রোড, স্বাধীনতা প্রাঙ্গণ, টেনিস কমপ্লেক্স, ডেভিড কোম্পানীপাড়া, মধ্যপাড়া, ভিএইড রোড, বোয়ালীসহ আশেপাশের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। বন্ধ হয়ে গেছে বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ।

যথাসময়ে বাঁধ সংস্কার না করায় এমন দুর্দশায় পড়তে হয়েছে বলে অভিযোগ শহরবাসীর।

শহরের ২০টি আশ্রয় কেন্দ্রে প্রায় ৭ হাজার মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন। বন্যাকবলিতদের সর্বাত্মক ত্রাণ সহায়তা দেয়ার আশ্বাস দিলেন পৌর মেয়র শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবীর মিলন।

তিনি জানান, নিম্ন অঞ্চলের মানুষদের আমরা বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে রেখেছি। তাদের সার্বিক সহযোগিতা দেয়ার জন্য আমরা সর্বদা চেষ্টা করে যাচ্ছি।

জেলা শহর ও এর আশেপাশের এলাকা রক্ষায় দ্রুত বাঁধ সংস্কারের দাবি এলাকাবাসীর।

এমএস


oranjee