ঢাকা, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৯ | ৯ শ্রাবণ ১৪২৬

 
 
 
 

হালিমা মুক্তা’র ‘বিমুখ বসন্ত’

আতিক হেলাল ৬:১৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০১৯

কবি ও কথাসাহিত্যিক হালিমা মুক্তা’র লেখা ২য় গল্পগ্রন্থ ‘বিমুখ বসন্ত’ আমার হাতে এসেছে। বইটির প্রকাশক ‘বেহুলা বাংলা’। প্রচ্ছদ করেছেন আল নোমান। দাম ১৬৫ টাকা (৫৫ পৃষ্ঠা)।

প্রথমেই বলতে হয়, দৃষ্টিনন্দন প্রচ্ছদ আর চমৎকার বোর্ড বাঁধাই বইটি আগ্রহী পাঠককে আকৃষ্ট করতে সক্ষম। তবে বইয়ে কোনো সূচিপত্র নাই। পৃষ্ঠা উল্টে দেখা গেলো, ২টি বড় গল্প আছে বইটিতে। প্রথমটি ‘ভালোবাসার বেড়াজাল’ এবং দ্বিতীয়টি ‘সোনালি জীবন’।

‘ভালোবাসার বেড়াজাল’-এ আমাদের সমাজেরই জীবন-সংগ্রামে পোড় খাওয়া এক যুবকের ভেঙে যাওয়া স্বপ্নগুলোকে চিত্রায়ণ করা হয়েছে সাধারণ ভাষায়। গতানুগতিক কাহিনী, তবে লেখকের অন্তর্ভেদী আবেগে মথিত হয়ে নায়ক হিমেল ও তার স্বপ্নের ‘জলকন্যা’র বিয়োগান্ত কাহিনী অনেকটাই মনোগ্রাহী হয়ে উঠতে পারে পাঠকের কাছে।

দ্বিতীয় গল্প ‘সোনালি জীবন' গড়ে উঠেছে আমাদের স্বাধীনতা-সংগ্রামের ঘটনাকে ধারণ করে। সেই সময়ের অনিশ্চিত, ঝঞ্ঝাবিক্ষুব্ধ বাস্তবতায় নিপতিত একটি গ্রামে ছোট্ট একটি মেয়ের বাল্যবিয়ে হয়। তার পরবর্তি ঘটনাপ্রবাহে একটি পরিবার ও সমাজের কী রূপ পরিগ্রহ করতে পারে, তার একটি ছোট্ট ছায়াচিত্র তুলে আনার চেষ্টা করেছেন কথাশিল্পী হালিমা।

দুটি গল্পের পরিণতি সম্পর্কে জানতে পাঠক বইটি পড়বেন বলে আশা করি। বইটি পাওয়া যাবে ২০১৯-এর একুশে গ্রন্থমেলায়। সেইসাথে পাওয়া যাবে তার আরেকটি শিশু-কিশোর গল্পের বই ‘বোকা রাজা ও টুনটুনি’। প্রকাশক পাঁপড়ি প্রকাশ। মূল্য ৭০ টাকা।

তার আগে আসুন, কবি ও কথাসাহিত্যিক হালিমা মুক্তা সম্পর্কে এক নজরে কিছু জেনে নিই। তার লেখালেখি কিশোরকাল থেকেই। গ্রামের বাড়ি যশোর জেলায়। বর্তমান ঠিকানা কালাচাঁদপুর, গুলশান, ঢাকায়। পিতা মাকসুদুর রহমান ব্যবসায়ী। মা হাসিনা পারভীন গৃহিণী।

হালিমা লেখাপড়া করেছেন যশোর উপশহর মহিলা ডিগ্রী কলেজে। শিশু ও নারী, মানুষ ও মানবতা নিয়ে কাজ করতে ভালোবাসেন তিনি।
তার প্রথম বই শিশু-কিশোর গল্পগ্রন্থ ‘নীল আকাশের ঘুড়ি’ প্রকাশ পায় ২০১৮ সালে।

এএইচ/এমএস


oranjee