ঢাকা, সোমবার, ২০ মে ২০১৯ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

 
 
 
 

গ্লোবাল টিভি অ্যাপস

বিষয় :

ঢাকা

  • শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ
  • ফাইনালের আগে মাশরাফিদের ফোন করে সাহস জুগিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী
  • ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে অনিশ্চিত সাকিব
  • ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ প্লেয়ার ড্রাফটে বাংলাদেশের ১৮ ক্রিকেটার
  • টাইগারদের হ্যাটট্রিক জয়
  • নিয়ম রক্ষার ম্যাচে টসে হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ
  • আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সম্ভাব্য বাংলাদেশ একাদশ

আবারও ইনিংস পরাজয় বাংলাদেশের

গ্লোবালটিভিবিডি ১১:১৭ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১২, ২০১৯

মাহমুদুল্লাহ। ফাইল ছবি

নিউজিল্যান্ড সফরে প্রথম টেস্ট ইনিংস ও ৫২ রানে হেরেছিল টাইগাররা। সেই ম্যাচ তাও চারদিন পর্যন্ত গড়িয়েছিল। এবার বৃষ্টির কারণে প্রথম দুইদিন ভেসে যাওয়া ওয়েলিংটন টেস্ট কার্যত তিনদিনের ম্যাচে পরিণত হয়েছিল।

তারপরও ইনিংস ও ১২ রানে হেরেছে তারা। তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজে ২-০তে পিছিয়ে পড়ল বাংলাদেশ। দোর্দণ্ড প্রতাপে সিরিজ জয় করল কিউইরা।

আগের দিনের ৩ উইকেটে ৮০ রান নিয়ে পঞ্চম ও শেষ দিনে খেলতে নামে বাংলাদেশ। চতুর্থ দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার ও মোহাম্মদ মিঠুন নির্বিঘ্নে প্রথম ৪০ মিনিট কাটিয়ে দেন। এরপরই হোঁচট খায় টাইগাররা।

ট্রেন্ট বোল্টের বলে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ২৮ রানে ফেরেন সৌম্য। ঘটে ৫৭ রানের জুটির সমাপ্তি। পরে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে নিয়ে খেলা ধরেন মিঠুন। ধীরে ধীরে এগিয়ে যান তারা। তবে হঠাৎই খেই হারান মিঠুন। ব্যক্তিগত ৪৭ রানে নিল ওয়েগনারকে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসেন তিনি। তার পরই পথ হারায় বাংলাদেশ।

আস্থার প্রতিদান দিতে পারেননি লিটন দাস। তার আউট ছিল আরও দৃষ্টিকটু। ওয়েগনারের শর্ট বলে পুল করতে গিয়ে বোল্টকে ক্যাচ দিয়ে আসেন তিনি।

এরপর ওয়েগনারের আরেকটি শর্ট বলে টম লাথামকে ক্যাচ তুলে দেন তাইজুল ইসলাম। ধ্বংসস্তূপের মধ্যে নেমে চাবুকের মতো ব্যাট চালাতে থাকেন মোস্তাফিজুর রহমান। মারেন দুটি ছক্কা। পরে বোল্টের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন তিনি।

তবে ক্রিজ আঁকড়ে ছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। একের পর এক সঙ্গী হারানোর পর বাধ্য হন আগ্রাসনের পথ বেছে নিতে। সাজান স্ট্রোকের পসরা। তবে থেমে যেতে হয় তাকেও। সেই ওয়েগনারকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে বোল্টকে ক্যাচ দিয়ে ফেরত আসেন তিনি। সাজঘরের পথ ধরার আগে ১২ চার ও ১ ছক্কায় ৬৯ বলে ৬৭ রানের লড়াকু ইনিংস খেলেন অধিনায়ক। বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে এটিই একমাত্র ফিফটি।

এরপর দ্রুত কাজ সারেন ওয়েগনার। এবাদত হোসেনকে সরাসরি বোল্ড করে শেষ পেরেকটি ঠোকেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ২০৯ রানে অলআউট বাংলাদেশ।

একাই ৫ উইকেট নিয়ে প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে দেন ওয়েগনার। ৪ উইকেট শিকারে তাকে যোগ্য সহযোদ্ধার সমর্থন জোগান বোল্ট। ডাবল সেঞ্চুরি করে ম্যাচসেরা হয়েছেন রস টেইলর।

এএইচ/


oranjee