ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

 
 
 
 

শরীরে গ্রেনেডের স্প্লিন্টার নিয়ে এখনও বয়ে বেড়াচ্ছে যন্ত্রণার জীবন

গ্লোবালটিভিবিডি ৪:৩১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০১৯

আনিসুর রহমান: ২০০৪ সালের ২১ শে অগাস্ট। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্য শেষ হওয়া মাত্রই শুরু হয় গ্রেনেড হামলা ও তীব্র গুলিবর্ষণ । এতে আওয়ামী লীগের তৎকালীন মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের স্ত্রী আইভি রহমানসহ ২৪ জন নিহত এবং কয়েকশ মানুষ আহত হন। হামলায় অল্পের জন্য বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রাণে বেঁচে গেলেও গ্রেনেডের প্রজ- শব্দে তার শ্রবণশক্তির সমস্যা হয়।

সেদিনের সেই হামলার ভয়াবহতা এতটাই তীব্র ছিল যে, নতুন করে কেউ জীবন ফিরে পাবে এমনটা কল্পনাও করতে পারেননি ঐদিনের সমাবেশে উপস্থিত তিন মাসের অন্তসত্ত্বা শাহনাজ হাবিব। শাহনাজ নিজ জীবন নিয়ে ফিরলেও, রক্ষা করতে পারেননি তার গর্ভে থাকা সন্তানটিকে। তিনি বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সেন্ট্রাল কার্যকরী কমিটির সদস্য।

স্প্লিন্টারের আঘাতের ক্ষত চিহ্ন ১৫ বছর পর ধরে শরীরে বয়ে বেড়াতে-বেড়াতে শাহনাজ এখন ক্যান্সারে আক্রান্ত। তবুও তিনি সাহায্যের জন্য হাত পাতেননি কারো কাছে।

অন্যান্য নেতাকর্মীর মতো ওই হামলায় গুরুতর আহত হয়েছিলেন সাহিন আক্তার সাথী নামের আরো একজন নেত্রী। ভয়াল সেই দিনের ঘটনা বর্ণনা করতে গিয়ে আৎকে ওঠেন। তিনি মোহম্মদপুর থানা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি।

সেদিন আহত ব্যক্তিদের সেবা ও উদ্ধার কার্যক্রমে চিকিৎসক ও পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন আহত দুই নেত্রী।

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম জাহিদ মনে করেন, ২১শে আগষ্টে গ্রনেড হামলায় তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যায় সফল হতে পারলে দেশ থেকে পুরোদমে গণতন্ত্র ধূলিশাৎ করে দিতে চেয়েছিল তখনকার বিএনপি-জামায়াত সরকার।

বহুল আলোচিত এই গ্রেনেড হামলার মামলায় গত বছরের ১০ অক্টোবর দেওয়া রায়ে ৪৯ আসামির মধ্যে ১৯ জনের ফাঁসি, ১৯ জনের যাবজ্জীবন ও ১১ জনের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেয়া হয়। আসামিদের মধ্যে ১৬ জন এখনো পলাতক রয়েছেন।

এদিকে একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলা মামলার ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের শুনানির জন্য পেপারবুক তৈরি হলে দ্রুত শুনানির জন্য আবেদন করা হবে বলে জানান আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তবে দ্রুত এ রায় কর্যকরের দাবী জানান ২১শে আগষ্ট গ্রেনেড হামলার নেতাকর্মীরা।

এমএস


oranjee