ঢাকা, সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৩ পৌষ ১৪২৫

 
 
 
 

বিষয় :

ঢাকা

  • ভিনগ্রহের প্রাণী দুনিয়াতে ঘুরে গেল, আমরা দেখতে পেলাম না কেন জানেন!
  • ফেসবুকে তর্ক ক্ষতিকর কেন জানেন ?
  • এবার অনলাইনে ‘ডেলিভারি’ দেবে ড্রোন!
  • ভয়ে চাকরি ছাড়ছেন ফেইসবুক কর্মীরা!
  • পৃথিবী থেকে উধাও অক্সিজেন: কারণ খুঁজতে মেরুতে নাসা
  • অ্যাপল ওয়াচ রুখে দিতে পারে ক্যানসার!
  • কাজের মনোযোগ নষ্ট করে স্মার্ট ফোন!

এবার চাঁদের উল্টো পিঠে যাচ্ছে মানবসভ্যতা!

গ্লোবালটিভিবিডি ৪:৪০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০২, ২০১৮

ছবি : ইন্টারনেট

এই প্রথম চাঁদের উল্টো পিঠে যাচ্ছে মানবসভ্যতা। চাঁদের সেই না-দেখা পিঠের মাটি কেমন, সেখানেও রয়েছে কি না বরফের পুরু স্তর বা বইছে কি তরল জলের ধারা?

চাঁদের উল্টো পিঠের সেই অদেখা, অজানা, অচেনা জগতে আমাদের পৌঁছে দিচ্ছে চীন। আগামী শনিবার, ৮ আগস্ট মহাকাশে পাড়ি জমাচ্ছে চীনা ল্যান্ডার ‘শাঙ্গে-৪’। তার সঙ্গে যাচ্ছে একটি রোভারও।

জন্মের পর থেকে উপগ্রহ চাঁদ শুধু তার একটা পিঠই দেখিয়ে এসেছে পৃথিবীকে। অন্য পিঠটি কোনও কালেই দেখায়নি, দেখাবেও না কোনও দিন। তার কারণ, পৃথিবীর সঙ্গে চাঁদ জুড়ে রয়েছে (লক্ড) ‘টাইড্যালি’। চাঁদ আর পৃথিবীর কক্ষপথগুলিকে উপর থেকে দেখলে, দেখা যাবে, পৃথিবীকে কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করতে যতটা সময় নেয় চাঁদ, সেই একই সময়ে আমাদের উপগ্রহটি লাট্টুর মতো ঘুরে নেয় নিজের চার পাশে (অ্যাক্সিস)। ফলে, কোনও দিনই আমরা চাঁদের উল্টো দিকের পিঠ দেখতে পাইনি।

মোদ্দা কথায়, উপগ্রহটির জন্য পৃথিবীর ‘ভালবাসা’ অত্যন্ত বেশি বলে! এতটাই যে, পৃথিবী কিছুতেই চাঁদকে তার অন্য ‘মুখ’টি দেখাতে দেয় না। পৃথিবীর সেই ‘ভালবাসা’র নামই অভিকর্ষ বল (গ্র্যাভিটেশনাল পুল বা ফোর্স)। চাঁদের তুলনায় পৃথিবীর ভর অনেকটাই বেশি বলে চাঁদের উপর আমাদের গ্রহের অভিকর্ষ বলের টানটাও খুব জোরালো। সেই অত্যন্ত জোরালো টানই চাঁদকে তার ‘চেনা মুখ’ পৃথিবীর দিক থেকে ঘুরিয়ে নিতে দেয় না।

সেই ‘ভালবাসা’য় চাঁদেরও যে খুব একটা খামতি রয়েছে, তা নয়। পৃথিবীর উপর চাঁদের অভিকর্ষ বলের ‘জোরজার’ও উপেক্ষা করার মতো নয়। পৃথিবীর যে হেতু তিন ভাগই জলে ভরা, তাই সাগর, মহাসাগরের উপর চাঁদের টান খুবই জোরালো। বিভিন্ন কক্ষপথে পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করতে করতে চাঁদ তার সেই ‘ভালবাসা’র কথা জানান দেয় আমাদের সাগর, মহাসাগরগুলিকে। চাঁদের টানেই জোয়ার, ভাঁটা হয়।

তবে আমাদের সৌরমণ্ডলে এই ঘটনা ঘটেছে অন্য গ্রহগুলির ক্ষেত্রেও। শুধু যে চাঁদই তার একটি পিঠ দেখায় পৃথিবীকে, তা নয়। একই ভাবে বৃহস্পতি, শনির চাঁদগুলিও তাদের গ্রহদের শুধু একটি পিঠই দেখিয়ে রেখেছে।

চাঁদের যে দিকটি আমরা দেখতে পাই না, সেই দিকের একটি কক্ষপথে ঘুরছে একটি চীনা উপগ্রহ। যার নাম- ‘শেকিয়াও’। কক্ষপথ থেকে এই উপগ্রহই নজর রাখবে ‘শাঙ্গে-৪’-এর উপর। চীনের ‘ন্যাশনাল স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন’ (সিএনএসএ)-এর গ্রাউন্ড স্টেশন আর ‘শাঙ্গে-৪’-এর মধ্যে বার্তা বিনিময় করবে। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

এএইচ/এমএস


oranjee