ঢাকা, শনিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৯ | ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

 
 
 
 

ফাইজুর মিল্টন-এর কবিতা ‘ক্ষমা’

গ্লোবালটিভিবিডি ৩:০৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৬, ২০১৯

ফাইজুর মিল্টন

ক্ষমা

বাবা, ও বাবা তুমি এমন করছো কেন?
তোমায় দেখে মনে হচ্ছে রেগে আছো যেন!
মুখটা তোমার দেখে আমার কত মায়া লাগে
তোমার হাসি দেখলে আমার আনন্দে মন জাগে।

বাবা. ও বাবা কেন ডাকছো এত রাতে?
কত আদর করতে তুমি আমায় ঘুম পাড়াতে।
পিঠে চাপর দিয়ে যখন রাখতে তোমার বুকে
ঘুমিয়ে যেতাম তখন যেন পেয়ে তোমার সুখে।

বাবা, ও বাবা তুমি এখন কেন ডাকো?
আমার অনেক ঘুম পেয়েছে, এখন আদর রাখো।
সকালে যে স্কুলে যাবো অনেক পড়া আছে
এবার দেখো প্রথম হয়ে উঠবো নতুন ক্লাছে।

বাবা, ও বাবা তুমি এমন কেন করো?
আমার ভীষণ ঘুম পেয়েছে, এখন আমায় ছাড়ো।
জানো বাবা, কাল সকালে মা দিয়েছে বলে
বৈশাখি মেলায় নিয়ে যাবে এবার প্রথম হলে।
বলেছি আমি মেলায় গিয়ে অনেক খেলনা নেবো
আর, বাবাকে একটা নতুন জুতো কিনেই এবার দেবো।

বাবা, ও বাবা এখন কোথায় নিয়ে যাও?
বলছি আমার ঘুম পেয়েছে ঘুমুতে আমায় দাও।
বাবা, তোমার কাঁধে চড়ে গেছি আমি কত দূর
শিস বাজিয়ে ছুটতে তুমি ঠোঁটে নিয়ে অনেক সুর।

বাবা, ও বাবা কেন দেখাও আমায় ভয়?
এখন অনেক রাত হয়েছে দুষ্টামির সময় নয়।
হাঁটতে গিয়ে হোঁচট খেয়ে ব্যথা পেতাম যদি
এক নিমেষে তোমার চোখটা হয়ে যেত নদী।

বাবা, ও বাবা তুমি এসব কি করো?
আমি তোমার ছোট্ট শিশু আমায় ক্ষমা করো।

 

এএইচ/এমএস


oranjee