ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

 
 
 
 

গ্লোবাল টিভি অ্যাপস

বিষয় :

ঢাকা

  • রূপপুর আণবিক প্রকল্পে মহাদুর্নীতিতেও দুদকের তৎপরতা নেই: রিজভী
  • কবি হেলাল হাফিজ গুরুতর অসুস্থ
  • কাজের গতি আরো বাড়াতে মন্ত্রিসভায় পুনর্বিন্যাস: কাদের
  • হাজারিবাগ বেড়িবাঁধে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২
  • সংরক্ষিত আসনে বিএনপির মনোনয়ন পেলেন ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা
  • খেলার মাঠ জয় করে এসে এবার কৃষি জমিতে নজর দিলেন মাশরাফি!
  • ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা আন্দোলন স্থগিত করলো ২২ ঘণ্টা পর

ঠাকুরগাঁওয়ে ভাইরাসে আক্রান্ত কৃষি জমি দি‌শেহারা কৃষক

গ্লোবালটিভিবিডি ৩:৪৩ অপরাহ্ণ, মে ০৪, ২০১৯

ছবি সংগৃহিত

সাদ্দাম হাে‌সনে,ঠাকুরগাঁও : ব্যাপক হারে মোজাইক নামক ভাইরাসরে প্রকোপ দখো দয়িছেে ঠাকুরগাঁওয়রে মষ্টিি কুমড়া ক্ষতে। শত শত বঘিা জমরি কুমড়া গাছ ও সবুজ পাতা বর্বিণ হয়ে গছেে । ক্ষতেে বালাই নাশক ছটিয়িে এই ভাইরাস থকেে ফসল বাঁচাতে পারছে না কৃষক । দ্রুত ছড়য়িে পড়ছে এক ক্ষতে থকেে অন্য ক্ষতেে । রোগ সারাতে র্ব্যথ হয়ে দশিহোরা হয়ে পড়ছেে কৃষক ।

সদর উপজলোর শবদল হাট গ্রামরে হাজী আব্দুল হাই বলনে, ২০-২৫ বছর ধরে তনিি মষ্টিি কুমড়া চাষ করছনে । এর আগে কুমড়া ক্ষতেে এ ধরনরে মহামারি দখো দয়েনি । তনিি জানান ক্ষতেে গাছ বড় হয়ছেে । ডোগাও ছড়য়িে পড়ছেে । ফুল-ফল আসতে শুরু করছেে । আর এ সময়ে সবুজ ডোগা পাতা ও কুশি হলুদ হয়ে যাচ্ছে । এতে ফুল-ফল টকিছে না । একই গ্রামরে র্বগা চাষী আব্দুল আজজি বলনে, তারা মষ্টিি কুমড়া সাথী ফসল হসিবেে আবাদ করনে । আলু চাষে খুব একটা লাভ হয় না । কুমড়া চাষ করে তারা সইে ক্ষতি পুষয়িে ননে ।

এ ছাড়া আমন ধান ওঠা র্পযন্ত কুমড়া বক্রিরি টাকা দয়িে সংসাররে খরচ মটোয় তারা । কন্তিু এবার কুমড়া ক্ষতেে রোগ দখো দয়োয় বপিদে পড়ছেনে এলাকার কুমড়া চাষীরা বলে জানান ওই র্বগা চাষী। বালয়িা গ্রামরে সুরুজ আলী অভযিোগ তারা কোম্পানরি বীজ কনিে প্রতারতি হয়ছেনে ।বীজ থকেে এই ভাইরাস ছড়াতে পারে বলে ধারনা ভুক্তভোগী কৃষকদরে । একই গ্রামরে শুক জামাল বলনে, কৃষি র্কমর্কতা ও কীটনাশক ব্যবসায়ীদরে পরার্মশে ওষুধ ছটিয়িে উপকার পাচছে না তারা ।রোগ ছড়য়িে পড়ছে এক ক্ষতে থকেে অন্য ক্ষতে।ে

এ দকিে কুমড়া চাষীদরে পাশাপাশি মৌ চাষীরাও ক্ষতরি মুখে পড়ছেে । ক্ষতেে ফুল না থাকায় তারা মধু আহরণ করতে পারছে না । মৌ চাষী মো. সুজন বলনে,কুমড়া চাষীদরে পাশাপাশি মৌ খামারীরা ও ক্ষততিে পড়ছেে । তনিি জানান, এ মৌসুমে কুমড়া ক্ষতেে মৌ মাছি মধু সংগ্রহ করে নজিরো যমেন বাঁচে । তমেনি আমরাও র্আথকি ভাবে লাভ হই । এবার চত্রি উল্টো । মৌ মাছি কে চনিি কনিে খাওয়াতে হচ্ছে তাদরে।

কৃষি বভিাগ জানায় , আলু তোলার পর একই জমতিে মষ্টিি কুমড়া জাতীয় ফসল চাষ করে লাভবান হচছে এ এলাকার কৃষক । বশিষে করে কুমড়া একটি র্অথকরী ফসল হসিবেে সমাদৃত এখন কৃষকদরে কাছে । উৎপাদন খরচ কম , লাভ পাওয়া প্রতবিছর কুমড়া আবাদ করছে কৃষক ।
জানা গছেে ,সার-বীজ, কীটনাশক -সচে ও পরর্চিচা বাবদ প্রতবিঘিা জমতিে কুমড়া চাষে খরচ হয়ছেে প্রায় ১২ হাজার টাকা। কন্তিু ফলনে বর্পিযয় দখো দয়োয় এ ক্ষতি পোষাবে কী ভাবে এ নয়িে অনকে কৃষক আহাজারি করছে ।

গত ২৯ এপ্রলি বীজ কোম্পানীদরে বরিুদ্বে শাস্তি মুলক ব্যবস্থা নয়ো সহ ক্ষতপিুরণ চয়েে সদর উপজলো কৃষি অফসিাররে কাছে আবদেন করনে কুমড়া চাষীরা ।
এ বষিয়ে উপজলো কৃষি র্কমর্কতা আনসিুর রহমান বলনে, মোজাইক ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ছেে মষ্টিি কুমড়া ক্ষতেে । এই ভাইরাসরে সরাসরি কোন চকিৎিসার ব্যবস্থা নইে । তবে তনিি বলনে কৃষকদরে একটি আবদেন পত্র পয়েছেনে তনিি । কন্তিু এ ব্যাপারে তার করার কছিুই নইে ।
এ বছর জলোয় এক হাজার ৭০ হক্টের জমতিে মষ্টিি কুমড়া চাষ হয়ছেে বলে জানয়িছেে কৃষি বভিাগ ।

এমএসএইচ/আরকে






oranjee