ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯ | ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

 
 
 
 

গ্লোবাল টিভি অ্যাপস

বিষয় :

ঢাকা

  • গাইবান্ধা-৩ আসনের উপ-নির্বাচন আজ
  • সৈয়দ আশরাফের আসনে মনোনয়নপত্র নিলেন তার ছোট বোন
  • ১২ দিন পর এনআইডি সেবা আবার চালু
  • প্রয়াত সৈয়দ আশরাফের কিশোরগঞ্জ-১ আসনে ২৮ ফেব্রুয়ারি পুনঃনির্বাচন হতে পারে
  • সেলিব্রেটিদের ভিড়ে যে কারণে আলোচনায় কণ্ঠশিল্পী শিউলি
  • পঞ্চম উপজেলা নির্বাচনে এবার ব্যয় ধরা হয়েছে ৬৭৭ কোটি টাকা
  • সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন ফরম জমা দিলেন সাহসী সেই অ্যাডভোকেট রানু

পাবনায় ধানের শীষ প্রার্থী আবু সাইয়িদের গাড়িবহরে হামলা

গ্লোবালটিভিবিডি ১:১৮ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮

হামলার শিকার গাড়ি

পাবনা প্রতিনিধি: পাবনার সাঁথিয়ায় সদ্য আওয়ামী লীগ ছেড়ে ঐক্যফ্রন্টে যোগ দেয়া পাবনা-১ আসনের ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী অধ্যাপক আবু সাইয়িদের গাড়িবহরে হামলার ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে তিনি সাঁথিয়া থানায় রয়েছেন। এ ব্যাপারে অধ্যাপক আবু সাইয়িদ থানায় লিখিত অভিযোগ দেন বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, বেড়া উপজেলার নিজ বাসা থেকে সাঁথিয়ার ধোপাদহ এলাকায় নির্বাচনী জনসভায় যাচ্ছিলেন অধ্যাপক আবু সাইয়িদ। বেলা ১১টার দিকে তার গাড়িবহরটি সাঁথিয়া বাজারের শিমুলতলা মোড়ে পৌঁছালে একদল দুর্বৃত্ত হামলা চালায়। এ সময় তার দুটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়।

১৯৭০ সালের নির্বাচনে অধ্যাপক আবু সাইয়িদ আওয়ামী লীগের এমপি হন। স্বাধীন বাংলাদেশের সংবিধান প্রণেতাদের অন্যতম তিনি। নবম সংসদ নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন পাননি। পরে দশম সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ছিলেন। একাদশ সংসদ নির্বাচনেও তিনি নৌকার মনোনয়নবঞ্চিত হয়ে গণফোরামে যোগ দেন। এবার ধানের শীষ প্রতীক তিনি পাবনা-১ (বেড়া ও সাঁথিয়া) আসনে নির্বাচন করছেন।

সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, অধ্যাপক আবু সাইয়িদ এর গাড়িতে আচমকা কে বা কারা হামলা চালিয়েছে। দুটি গাড়ির গ্লাস ভেঙে ফেলে হামলাকারীরা। তবে অধ্যাপক আবু সাইয়িদ এর কোন ক্ষতি হয়নি। হামলার পর তিনি পুলিশী সাহায্য হাওয়ার পর তাকে পুলিশী পাহারায় উপজেলা পরিষদে পৌছে দেয়া হয়।

অধ্যাপক আবু সাইয়িদ এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আমি হামলার পর থানায় এবং পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সহকারী রিটার্নিং অফিসার) এর অফিসে অবস্থান গ্রহণ করেছি। তিনি বলেন, ‘আমার গাড়িতে হামলা হয়, গাড়ি বহরে আক্রমণ করা হয়েছে। আমি নিজেও আক্রান্ত্র হয়েছি। আমার ৫ জন কর্মী আহত হয়েছেন, একজনকে পাওয়া যাচ্ছে না। ২টি গাড়ি ভাঙ্চুর করা হয়েছে। ২টি মোটর সাইকেল আক্রমণকারীরা নিয়ে গেছে। এ বিষয়ে থানায় এবং রিটার্নিং অফিসারের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছি। আমি আইনগত সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।’

সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহাঙ্গীর আলম জানান, তার গাড়িটি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তবে কেউ হতাহত হননি। পরে তাকে পুলিশী পাহারায় কিছু পথ এগিয়ে দেয়া হয়।

এআইজে/এএইচ/এমএস


oranjee