ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৬ আশ্বিন ১৪২৬

 
 
 
 

বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়া হবে: মির্জা ফখরুল

গ্লোবালটিভিবিডি ৮:৩১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১১, ২০১৮

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ছবি: সংগ্রহ

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে বিএনপিসহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। রোববার (১১ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ঘোষণা দিয়েছেন ফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন। তবে আসন বন্টন নিয়ে এখনও ঐক্যমতে পৌঁছাতে পারেনি জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও প্রধান শরিক দল বিএনপি। 

রোববার গ্লোবাল টিভি অনলাইনের সঙ্গে একান্তে কথা বলেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন গ্লোবাল টিভি অনলাইনের ‘এডিটর ইন ক্রাইম’ মোয়াজ্জেম হোসেন নান্নু। আলাপচারিতার চুম্বক অংশ তুলে ধরা হলো-

গ্লোবাল টিভি অনলাইন: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির সঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আসন ভাগাভাগির বিষয়ে আলোচনা কি হয়েছে?

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর: এখনও আলাপ-আলোচনা চলছে, চুড়ান্ত কিছু হয়নি।

গ্লোবাল টিভি অনলাইন: আগামীকাল (সোমবার) থেকে দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহের দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। আসন ভাগাভাগির বিষয়টি ফয়সালা না করে দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ কতটুকু যুক্তিযুক্ত বলে মনে করেন?

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর: দেখুন, ৩০০ আসনে প্রার্থী দেয়ার সক্ষমতা বিএনপির রয়েছে। বৃহত্তর ঐক্যের স্বার্থে বিএনপি কিছু আসনে শরিকদের ছাড় দেবে। তবে কোন কোন আসনে ছাড় দেবে এবং কত আসনে ছাড় দেওয়া হবে তা বিএনপির সর্বোচ্চ পর্যায়ে আলোচনার পর চুড়ান্ত হবে।

গ্লোবাল টিভি অনলাইন: সর্বোচ্চ পর্যায় বলতে কারারুদ্ধ বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া কিংবা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপার্সন তারেক রহমানকে বোঝাতে চাইছেন কিনা?

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর: অবশ্যই ওই পর্যায়ের মতামত নেওয়া হবে। এছাড়া বিএনপির বর্ষীয়ান ও ত্যাগী নেতাদের নিয়ে বৈঠকে এ ব্যাপারে আলোচনা করে সকলের মতামত নেয়া হবে।

গ্লোবাল টিভি অনলাইন:  জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতৃত্বে বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিতে যে সাত দফা দিয়েছিল সেগুলোর অন্যতম ছিল বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি। আপনারা কি সে দাবি থেকে সরে এসেছেন?

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর: প্রশ্নই আসে না। আমরা বিশ্বাস করি, জাতীয় নির্বাচনের আগে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়া হবে।

গ্লোবাল টিভি অনলাইন: সাত দফার মধ্যে পূন:তফসিল ঘোষণার দাবির বিষয়ে ইতিমধ্যেই নির্বাচন কমিশন ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে ভুতুড়ে মামলা চিহ্নিত ও নতুন মামলা না দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। এসব দাবি মেনে নেওয়ার বিষয়টি ঐক্যজোট এবং বিএনপি কিভাবে দেখছে?

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর: এটি অবশ্যই ইতিবাচক। আমরা সব সময় লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডের কথা বলেছি। আশা করছি, নির্বাচনের আগেই চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়া হবে। একই সাথে দলীয় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে করা সব রাজনৈতিক সব মামলাও তুলে নেয়া হবে।

গ্লোবাল টিভি অনলাইন: সময় দেয়ার জন্য গ্লোবাল টিভির পক্ষ থেকে আপনাকে ধন্যবাদ।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর: আপনাকে এবং আপনার মাধ্যমে গ্লোবাল টিভির অগণিত পাঠক শ্রোতাকেও ধন্যবাদ।

 

এসএনএ

 

 


oranjee