ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ | ৫ কার্তিক ১৪২৬

 
 
 
 

আমেরিকা কারো সঙ্গেই যুদ্ধে যেতে চায় না : মাইক পেন্স

গ্লোবালটিভিবিডি ১:৩৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯

ছবি : ইন্টারনেট

সৌদি আরবের মতো মিত্রদেশকে রক্ষার জন্য আমেরিকা সবসময় প্রস্তুত, তবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প প্রশাসন কারো সাথে যুদ্ধে যেতে চায় না; বললেন আমেরিকার ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। ইরানের গণমাধ্যম প্রেস টিভি জানায়।

গতকাল মঙ্গলবার মাইক পেন্স আরও বলেন, 'সৌদি আরবের উপরে বিনা উসকানিতে হামলার পর আমরা আপনাদেরকে একথা বলতে পারি যে, আমরা প্রস্তুত। এ ব্যাপারে সন্দেহের কোন অবকাশ নেই।'

গত শনিবার খুব ভোরে ইয়েমেনের হুতি আন্দোলন সমর্থিত সেনাবাহিনী ড্রোনের সাহায্যে সৌদি আরবের আরামকো তেল স্থাপনার ওপর ব্যাপক হামলা চালায়। এতে সৌদি আরবের তেল উৎপাদন তাৎক্ষণিকভাবে অর্ধেকে নেমে এসেছে এবং বিশ্ববাজারে তেলের দাম বেড়ে গেছে।

এ অবস্থায় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সৌদি আরবের স্বার্থরক্ষার জন্য আমেরিকার প্রস্তুতির কথা ঘোষণা করেছেন তবে তিনি সৌদি আরবের পক্ষে এখনই কোনো যুদ্ধে জড়াতে চান না বলে সোমবার জানিয়েছেন। গতকাল মাইক পেন্স মূলত ট্রাম্পের কথারই প্রতিধ্বনি করলেন।

আরামকো তেল স্থাপনার ওপর হামলার বিষয়ে হুতিরা দায় স্বীকার করেছে; এরপরও ইরানকে ওই হামলার জন্য দায়ী করছে আমেরিকা। তবে ইরান আমেরিকার সমস্ত অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছে।

এদিকে, হামলার পর সৌদি আরবে তেলক্ষেত্রের স্থাপনায় হামলার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটোর প্রধান জেনস স্টোলটেনবার্গ।

এই ঘটনা গোটা অঞ্চলকে অস্থিতিশীল করে তুলবে আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি। বার্তা সংস্থা এএফপিকে দেয়া সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, সব পক্ষকেই এমন হামলা না করার অনুরোধ জানাই কারণ এমন ঘটনা গোটা অঞ্চলে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

অপরদিকে, ড্রোন হামলা থেকে সৌদি আরবের তেল স্থাপনাগুলোর সুরক্ষা দেবার প্রস্তাব দিয়েছে রাশিয়া। এমনকি সৌদি আরব চাইলে তাদের কাছ থেকে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাও কিনতে পারে। একথা জানিয়েছেন, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

সৌদি তেল স্থাপনায় হামলার দুদিন পর তুরস্কের আঙ্কারায় অনুষ্ঠিত সিরীয় সম্মেলনে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ও তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের সঙ্গে বৈঠকের পর একথা জানান তিনি।

এমএস


oranjee