ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

 
 
 
 

স্বামীর লাশ নিতে হাসপাতালে ৭ স্ত্রী!

গ্লোবালটিভিবিডি ১১:০৯ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ০৪, ২০১৯

সাতটি বিয়ে করেছিলেন তিনি। কোনো স্ত্রীই একে অপরকে চিনতেন না। কিন্তু সবাইকে ম্যানেজ করে চলতে চলতে বেঁচে থাকার আগ্রহটাই হারিয়ে ফেলেছিলেন ট্রাকচালক পবন কুমার (৪০)।

তাই সংসারের অশান্তি আর যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে অবশেষে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন তিনি।

ভারতের উত্তরাখণ্ডের হরিদ্বারে এ ঘটনা ঘটেছে।

টাইমস নাউ জানিয়েছে, গত রোববার সবার অজান্তে বিষপান করেন পবন। বিষয়টি জানতে পেরে সঙ্গে সঙ্গে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান তার স্ত্রী। হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যান পবন। তার পর শুরু হয় বিপত্তি। একের পর এক নারী এসে পবনকে নিজের স্বামী বলে দাবি করতে থাকেন।

স্থানীয় সূত্রের বরাতে খবরে বলা হয়, পরিবার নিয়ে হরিদ্বারের রবিদাস বস্তি এলাকায় থাকতেন পবন। গত রোববার সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন তিনি। কিছুক্ষণ পর স্বামীকে অজ্ঞান অবস্থায় দেখতে পেয়ে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যান তার স্ত্রী। কিন্তু চিকিৎসা চলাকালীনই মৃত্যু হয় পবনের।

পবনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয় মর্গে। কিন্তু মর্গ থেকে লাশটি বের করে পরিবারের হাতে তুলে দেয়ার সময় বাধে বিপত্তি। একে একে সাত নারী এসে পবনকে তাদের স্বামী বলে দাবি করতে থাকেন।

তবে পবনের কোনো স্ত্রীই জানতেন না যে পবন কুমারের সঙ্গে অন্য নারীর বিয়ে হয়েছিল।

এএইচ


oranjee