ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯ | ৬ আষাঢ় ১৪২৬

 
 
 
 

পরোপকারে এশিয়ায় বাংলাদেশের স্থান নবম

গ্লোবালটিভিবিডি ১:১৪ অপরাহ্ণ, জুন ০১, ২০১৯

অন্যের উপকার করার জরিপে বিশ্বের অর্ধেকেরও বেশি দেশের মানুষকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশের জনগণ৷ আর এ সূচকে এশিয়ায় বাংলাদেশের স্থান নবম৷ বিশ্বের ১৪৬টি দেশের মধ্যে ৭৪ নম্বরে বাংলাদেশের অবস্থান৷ তিনটি বিষয়ের ওপর তথ্য নিয়ে একটি দেশের স্কোর নির্ধারণ করা হয়৷ সেখানে বাংলাদেশের গড় স্কোর ৩১।

২০১৭ সূচকের চেয়ে ২০১৮ সূচকে সবচেয়ে উন্নতি করা প্রথম তিনটি দেশের একটি বাংলাদেশ৷ এক ও দুই নম্বরে আছে কঙ্গো ও প্যারাগুয়ে ৷ সূচকটি প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক সংস্থা চ্যারিটি এইড ফাউন্ডেশন ৷

২০১৭ সাল জুড়ে বিশ্বের ১৪৬টি দেশের গ্রাম ও শহরের নির্দিষ্ট সংখ্যক মানুষের কাছে গিয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন করা হয়৷ সেখানে প্রশ্নের মধ্যে ছিল-
- চেনেন না এমন কাউকে সাহায্য করেছেন?
- কোনো চ্যারিটিতে দান করেছেন?
- কোনো প্রতিষ্ঠান বা সংস্থায় স্বেচ্ছাশ্রম দিয়েছেন?'
একটি দেশের নমুনা জনসংখ্যার এসব উত্তরের ভিত্তিতে সারাদেশের জন্য একটি ফলাফল করে ‘গিভিং ইনডেক্স' বা ‘পরহিতৈষী সূচক' তৈরি করা হয়৷

বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান ৭৪ হলেও, সংখ্যার বিচারে সবচেয়ে বেশি অচেনা মানুষকে উপকার করার সূচকে দক্ষিণ এশিয়ায় ৭ম৷ তবে শতকরা হারের হিসেবে অচেনা মানুষকে উপকার করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান ৪৪৷ দান খয়রাত করার ক্ষেত্রে ৭৯তম অবস্থানে, আর স্বেচ্ছাশ্রম দেবার ব্যাপারে ১১০ নম্বরে রয়েছে বাংলাদেশ৷

তবে বিশ্ব সূচকে শীর্ষ অবস্থানে নেই কোনো ধনী দেশ৷ এক নম্বরে রয়েছে ইন্দোনেশিয়া৷ সিঙ্গাপুর ৭ ও মিয়ানমার ৯ নম্বরে রয়েছে৷ ২০১৭ সালে মিয়ানমার এক নম্বরে থাকলেও এবার ৯ ধাপ পিছিয়েছে৷ এশিয়ার শীর্ষ দশে বাংলাদেশ, মিয়ানমার ও সিঙ্গাপুর ছাড়া রয়েছে, শ্রীলঙ্কা, মঙ্গোলিয়া, নেপাল, দক্ষিণ কোরিয়া, থাইল্যান্ড ও ফিলিপাইন্স৷

এমএস


oranjee