ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯ | ৬ বৈশাখ ১৪২৬

 
 
 
 

গ্লোবাল টিভি অ্যাপস

বিষয় :

ঢাকা

  • নেকড়ের মত হয়ে যাচ্ছে যে কিশোর
  • ৬ বছর বয়সী পুলিশ প্রধান!
  • তিন পাণ্ডার কবল থেকে কিভাবে বাঁচলো বাচ্চা মেয়েটি?
  • অমর প্রাণী জেলিফিশ!
  • বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ সিলেটের তৈয়ব আলী!
  • দুনিয়াতে যমের একমাত্র মন্দির কোথায় আছে জানেন?
  • দ্বীপের নাম ‘ফিংগাল’স কেভ’

জানা গেলো, নারীদের চোখে সহজে পানি আসে কেন

গ্লোবালটিভিবিডি ৩:২৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ০৮, ২০১৯

নারীদের মতো পুরুষদের চোখে সহজে পানি আসে না কেন? সেই উত্তর অবশেষে পাওয়া গেল। সুইজারল্যান্ডের ইউনিভার্সিটি অফ বেজেল-এর একটি গবেষণার প্রতিবেদন অনুযায়ী, পুরুষ ও নারীদের মস্তিষ্কে কিছু পার্থক্য থাকে। যার জন্য পুরুষরা নারীদের মতো অনুভূতিহীন ও আবেগপ্রবণ হন না।

কার আবেগ বেশি নারী না পুরুষের? এই আলোচনা অনেকেই করে থাকেন। কিন্তু আমরা জানি না মস্তিষ্কের সংযোগকারী বিভিন্ন স্নায়ুর পার্থক্যের কারণেই মানুষের আবেগগত আচরণের পার্থক্য হয়। কিছু মানুষ বেশি আবেগী হয় এবং কিছু মানুষের ভেতর আবেগ কম দেখা যায়।

ব্যস্ততা বা সংসারের চাপে নয়, মস্তিষ্কের গঠনের কারণে ছেলেদের হৃদয়ে কম আবেগ থাকে। গবেষণা করে আরো দেখা গেছে, শুধু আবেগ নয় মস্তিষ্কের গঠনের ভিন্নতার কারণে উদাসীন হওয়ার প্রবণতাও পুরুষদের বেশি।

এমনকি পুরুষের অপরাধ বোধও নারীর তুলনায় অনেক কম হয়। গবেষণা অনুযায়ী, মস্তিষ্কের যে অংশ অন্য ব্যক্তির আবেগ এবং অনুভূতি বোঝার সঙ্গে জড়িত ছেলেদের সেই অংশে অ্যান্টেরিয়র ইন্সুলা বা গ্রে ম্যাটারের ঘনত্ব বেশি থাকে। তাই ছেলেরা আবেগ বর্জিত আচরণ বেশি করে। অন্যদিকে বাড়ন্ত ছেলেদের মধ্যে তুলনামূলক ভাবে অ্যান্টেরিয়র ইনসুলা বা ধূষর কোষের সংখ্যা বেশি থাকে। মস্তিষ্কে এই ধূষর কোষের মাধ্যমেই অন্যের দুঃখে মানুষ সহানুভূতিশীল হয়।

বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পুরুষদের মস্তিষ্কে এই ধূষর কোষের সংখ্যা কমতে থাকে। মূলত মস্তিষ্কের গঠনই নির্ধারণ করে সেই মানুষটির আবেগ-অনুভূতি কেমন হবে।

এএইচ/এমএস


oranjee