ঢাকা, রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৬ আশ্বিন ১৪২৬

 
 
 
 

জীবনযুদ্ধে হার না মানা দুই সৈনিকের গল্প

গ্লোবালটিভিবিডি ৪:০১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৫, ২০১৯

নূরুজ্জামান শেখ মাসুম ও ময়েজ উদ্দিন বয়াতি

আনিসুর রহমান: নূরুজ্জামান শেখ মাসুম পেশায় একজন ভ্রাম্যমাণ হকার। রাজধানীর বিভিন্ন রুটের বাসে হকারি করে জীবিকা নির্বাহ করেন তিনি। একসময় মাসুম গার্মেন্টসে চাকরি করতেন। কিন্তু ঘরে অসুস্থ স্ত্রী ও একমাত্র মেয়ের পড়াশোনার জন্য তার আয় যথেষ্ট ছিলো না। তাই আর কোন দিকে না তাকিয়ে মাসুম নেমে পড়েন হকারিতে।

মাসুমের দিন শুরু হয় মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস মাহীকে কলেজ দিয়ে আসার মধ্য দিয়ে। মাহী রাজধানীর মিরপুরের একটি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিকের বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের মেধাবী ছাত্রী। স্বপ্ন দেখে বাবার কষ্ট মুছে দিয়ে সংসারে আর্থিক স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনার।

অন্যদিকে সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে স্বরাজের মনোমুগ্ধকর ছন্দ ছড়িয়ে পড়ে রাজধানীর বনানীর ১১ নম্বর রোডজুড়ে। স্বরাজের ছন্দের সাথে ময়েজ উদ্দিন বয়াতির কন্ঠের সুর মিলে ফুটে ওঠে আবহমান গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য ভাওয়াইয়া, ভাটিয়ালি ও জারি সারি গান। সংসারের দৈন্যদশা কাটাতে শেরপুর জেলা থেকে প্রায়ই রাজধানীতে ছুটে আসেন ময়েজ উদ্দিন বয়াতি। অনেক কষ্টে কিছু টাকা জোগাড় করে নিজেই তৈরি করেন স্বরাজ। এখন স্বরাজই জীবিকা নির্বাহেরএকমাত্র অবলম্বন তার। স্বরাজ বাজিয়ে গান করে মানুষের কাছ থেকে পাওয়া যৎসামান্য অর্থ দিয়ে চলে ময়েজ উদ্দিন বয়াতির জীবন সংসার।

এমএস


oranjee