ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯ | ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

 
 
 
 

লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়েছে এরশাদকে

গ্লোবালটিভিবিডি ৫:৩৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ০৪, ২০১৯

ছেলে সাদ এরশাদকে নিয়ে স্বামী এরশাদের শয্যাপাশে রওশন, গত শুক্রবারের ছবি

ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) বিকেল ৪টা ১০ মিনিটে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকরা তাকে লাইফ সাপোর্টে পাঠান।

এইচএম এরশাদের ভাই এবং জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জিএম কাদের বলেন, ওনার (এরশাদ) শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ার কারণে চিকিৎসকরা তাকে লাইফ সাপোর্টে নিয়েছেন। আমরা দেশবাসীর কাছে তার জন্য দোয়া কামনা করছি।

তিনি আরো বলেন, গত তিন দিন ধরে এরশাদের শারীরিক অবস্থা অপরিবর্তিত আছে। তিনি চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে বলেন, চিকিৎসকদের প্রত্যাশা অনুযায়ী এরশাদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে না। তবে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের চিকিৎসকরা এরশাদকে বিশ্বমানের চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন, সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের চিকিৎসকরা দেশী-বিদেশী বিশেষজ্ঞের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করেই চিকিৎসা দিচ্ছেন। সিএমএইচের চিকিৎসকরা মনে করলেই পল্লীবন্ধুকে বিদেশ নেয়া হবে অথবা বিদেশ থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডাকা হবে।

জাতীয় পার্টির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু জানান, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে এরশাদের অবস্থার অবনতি হয়। বিকাল ৪টা ১০ মিনিটে তাকে লাইফ সাপোর্ট দেন চিকিৎসকরা।

এর আগে দুপুর ২টার দিকে হাসপাতালে এরশাদকে দেখে তার স্ত্রী রওশন এরশাদ বলেন, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের শারীরিক অবস্থা সংক্রান্ত সব প্রতিবেদন সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসকদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘ডাক্তাররা কী মতামত দেয় সেটার উপর নির্ভর করে আমরা দেখব, অন্য কিছু করা যায় কি না। এখানকার ডাক্তাররা যত্ন সহকারে চিকিৎসা করতেছে, সর্বতোভাবে চেষ্টা করতেছে।’

৯০ বছর বয়সী সাবেক সামরিক শাসক এরশাদ দীর্ঘদিন রক্তের রোগ মাইলোডিসপ্লাস্টিক সিনড্রোমে ভুগছেন। তার অস্থিমজ্জা পর্যাপ্ত হিমোগ্লোবিন উৎপাদন করতে পারছে না। গত ২২ জুন সকালে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করার পর এরশাদের ফুসফুস ও কিডনিতে সংক্রমণের বিষয়টি ধরা পড়ে।

এরশাদের শারীরিক অবস্থা নিয়ে রওশন বলেন, ‘ওনার রক্তের একটা সমস্যা ছিল, সে সমস্যাটার সঙ্গে বয়স দুটো মিলে অনেক বেশি কমপ্লিকেশন হয়ে যাচ্ছে। এখন আস্তে আস্তে সব অর্গানগুলো উইক হয়ে যাচ্ছে। ডাক্তাররা সর্বোতভাবে চেষ্টা করেছেন। এখন সবাই ওনার জন্য দোয়া করবা… বিশেষ করে রংপুরবাসী আরও বেশি দোয়া চাইবা। সবাই মিলে দোয়া করবা। সব কিছু তো আল্লাহর হাতে, আল্লাহ ইচ্ছা করলে আবার পুনর্জীবিত করতে পারেন মানুষকে। এখন সবকিছু আল্লাহ্-র হাতে।’

এরশাদের সুস্থতা কামনা করে শুক্রবার দেশের সব মসজিদ, মন্দির, প্যাগোডা, গির্জাসহ অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে দোয়া ও প্রার্থনার আয়োজন করবে জাতীয় পার্টি।

এমএস


oranjee

আরও খবর :