ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৬

 
 
 
 

বিএসটিআই’র পরীক্ষা ছাড়া ৫২ পণ্য বাজারজাত করা যাবে না

গ্লোবালটিভিবিডি ৪:৫৮ অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০১৯

ফাইল ছবি

পরীক্ষার আগ পর্যন্ত বিএসটিআই ঘোষিত নিম্নমানের ৫২টি পণ্যের কোনোটিই বাজারজাত করা যাবে না।

রোববার (১৯ মে) সকালে রাজধানীর কাওরান বাজারে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের কার্যালয়ে সমন্বিত বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।

এদিকে, সব কোম্পানির বিরুদ্ধেই মামলা করার কথা জানিয়েছে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ। এর আগে, বিএসটিআই ঘোষিত ৫২টি মানহীন পণ্য বাজার থেকে অবিলম্বে প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন আদালত।

গত ১২ মে বিএসটিআই’র গবেষণায় নিম্নমান প্রমাণিত হওয়ায় নামিদামি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৫২টি পণ্য জব্দ, ধ্বংস এবং পণ্য উৎপাদন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এরপর নড়েচড়ে বসে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, বিএসটিআই, র‌্যাবসহ সরকারের বিভিন্ন সংস্থা। বাজার থেকে এসব পণ্য সরিয়ে নিতে অভিযান শুরু করা হয়। কিন্তু তারপরও এখনো বাজারে হাইকোর্ট নিষিদ্ধ ৫২টি পণ্যের মধ্যে অধিকাংশ পণ্য পাওয়া যাচ্ছে।

এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ কি নেয়া হবে তা নির্ধারণে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে বৈঠকে বসে বিএসটিআইসহ সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলো। বৈঠক শেষে প্রেস ব্রিফিং এ বিএসটিআই’র পক্ষ থেকে জানানো হয়, বিএসটিআই কর্তৃক পরীক্ষা না করা পর্যন্ত ৫২টি পণ্যের কোনোটিই বাজারজাত করা যাবে না।

বিএসটিআই’র কর্তারা বলেন, ৫২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৯টি প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স বাতিল করেছি, ৪৩টি পণ্যের লাইসেন্স স্থগিত করেছি। পণ্যের মান উন্নয়ন না হওয়া পর্যন্ত এবং বিএসটিআই থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এরা কেউই বিক্রয় বা বাজারজাত করতে পারবে না। যদি করে, তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সদস্য মাহবুব কবির জানান, ৫২টি পণ্য বাজারজাত করা হলে সেইসব কোম্পানির বিরুদ্ধে মামলা করবে সংস্থাটি। তিনি বলেন, কোনো দোকানে যদি একটা কনটেইনারও পাওয়া যায়, আমাদের আইনে কিন্তু মামলা হবে বিক্রেতা এবং প্রতিষ্ঠানের মালিকের বিরুদ্ধে। আগেও তাই হয়েছে। এটি জামিন অযোগ্য অপরাধ।

এমএস


oranjee