ঢাকা, সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯ | ১১ ভাদ্র ১৪২৬

 
 
 
 

আহত যাত্রীদের আনতে মিয়ানমারে বাংলাদেশের বিশেষ বিমান

গ্লোবালটিভিবিডি ১:১৫ পূর্বাহ্ণ, মে ০৯, ২০১৯

ফাইল ছবি

মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুন বিমানবন্দরের দুর্ঘটনা কবলিত যাত্রীদের আনতে একটি বিশেষ ফ্লাইট পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ বিমান কর্তৃপক্ষ।

বুধবার রাত ১১টা ২০ মিনিটে বিশেষ ফ্লাইট ড্যাশ-৮ কিউট-৪০০ ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে মিয়ানমারের উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

বিশেষ এ ফ্লাইটে রয়েছে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের চিফ অফ ফ্লাইট সেফটি ক্যাপ্টেন সোয়েব চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি দল। ফ্লাইটটি নিয়ে যান ক্যাপ্টেন আনিস। তবে মিয়ানমার থেকে আহত যাত্রীদের নিয়ে ফ্লাইটটি আবার রাতেই ঢাকায় ফিরবে কিনা তা জানা যায়নি।

এর আগে বাংলাদেশ সময় বুধবার (৮ মে) সন্ধ্যায় মিয়ানমারের ইয়াংগুন বিমানবন্দরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজ রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ে। দুর্ঘটনায় কবলিত বিমানটির ফ্লাইট নম্বর বিজি-০৬০। বিমানটিতে ৩৩ জন আরোহী ছিলেন।

বিমানটি ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে দুপুর ৩টা ২০ মিনিটে ছেড়ে যায়। সন্ধ্যা ৬টা ২২ মিনিটে ইয়াংগুন বিমানবন্দরে অবতরণের সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

উড়োজাহাজটি যখন অবতরণ করছিল, তখন এলাকায় বৃষ্টি হচ্ছিল। এতে উড়োজাহাজটি রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ে।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মহিবুল হক বলেন, বিমানের বিজি ১৬০ এ মোট ৩৩ আরোহী ছিলেন। তাদের মধ্যে দুজন পাইলট ও দুজন কেবিন ক্রুও ছিলেন।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেন, যাত্রীরা অক্ষত আছেন। তবে কয়েকজন যাত্রী হয়তো সামান্য ব্যথা পেয়েছেন। পাইলট ও যাত্রীদের চিকিৎসার জন্য ঢাকা থেকে চিকিৎসক পাঠানো হচ্ছে।

ইয়াংগুনে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মঞ্জুরুল করিম চৌধুরী বলেন, আরোহীদের সবাই অল্প-বিস্তর আহত হয়েছে। তবে কারও আঘাতই মারাত্মক পর্যায় না। আহত ১৫ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এমএস


oranjee