ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯ | ৩০ কার্তিক ১৪২৬

 
 
 
 

বুয়েট শিক্ষার্থীদের আন্দোলন স্থগিত, তবে ক্লাসে ফিরছেন না শিক্ষার্থীরা

গ্লোবালটিভিবিডি ৬:৫৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৫, ২০১৯

সংগৃহীত ছবি

বাংলাদেশের প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আবরার হত্যাকাণ্ডের পর অপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি এবং স্থায়ী বহিষ্কারসহ ১০ দফা দাবিতে আন্দোলনে নামে। তবে, আপাতত মাঠ পর্যায়ের আন্দোলন স্থগিত করার ঘোষণা দিয়েছেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার এ ঘোষণা দিয়েছেন বুয়েটের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে ব্রিফ করেন বুয়েটের ১৫তম ব্যাচের ছাত্র মাহমুদুর রহমান।

এ সময় জানানো হয়, বুয়েট প্রশাসনের নিকট করা দাবি বাস্তবায়নের পথে অগ্রগতি হওয়ায় মাঠ পর্যায়ের আন্দোলন স্থগিত করা হয়েছে। তবে, চার্জশিট দাখিলের পর আসামিদের স্থায়ী বহিষ্কার না করা পর্যন্ত একাডেমিক কার্যক্রমে অংশ না নেয়ার ঘোষণাও দেয়া হয়। এছাড়া, আন্দোলনকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য একটি চক্র সুযোগ খুঁজছে। তাই, কেউ যেন এ বিষয়ে কোনো ধরনের সুযোগ নিতে না পারে সে বিষয়ে সবাইকে সতর্ক থাকার পরামর্শও দেয়া হয়।

আবরার হত্যাকাণ্ডের পর সরকার, বুয়েট প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পদক্ষেপে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বুয়েটের আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, আগামীকাল বুধবার গণ শপথ অনুষ্ঠিত হবে।

গেল ৬ই অক্টোবর রাতে নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হন বুয়েটের ইলেকট্রনিক অ্যান্ড ইলেকট্রিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ। এরপর থেকেই আন্দোলনের নামেন বুয়েটের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। টানা ৬ দিন আন্দোলনের পর বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষার কারণে দু'দিন আন্দোলন স্থগিত করার দেয়া হয়। পরে, আজ মঙ্গলবার পুনরায় আন্দোলন শুরু করার ঘোষণা দেয় শিক্ষার্থীরা। এ লক্ষ্যে আজ কয়কদফা বৈঠকও করে শিক্ষার্থীরা। শেষে, তারা বিকেল সাড়ে ৫টায় সংবাদ সম্মেলনের ঘোষণা দেন। সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে মাহমুদুর রহমান জানান, তারা আপাতত আন্দোলন স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এমএস


oranjee