ঢাকা, সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯ | ১০ ভাদ্র ১৪২৬

 
 
 
 

মোস্তফা মননের ভাষা আন্দোলনের বই ‘অক্ষর’ এর মোড়ক উম্মোচন

গ্লোবালটিভিবিডি ৬:০৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৯

মোস্তফা মননের বই ‘অক্ষর’ এর মোড়ক উম্মোচন করেন ভাষা সৈনিক আবদুল মতিনের স্ত্রী গুলবদন-নেসা মনিকা

একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে ভাষা আন্দোলনের প্রেক্ষাপটকে কেন্দ্র করে লেখা মোস্তফা মননের উপন্যাস ‘অক্ষর’। বইমেলা প্রাঙ্গণে এটির মোড়ক উম্মোচন করেন ভাষা সৈনিক আবদুল মতিনের স্ত্রী গুলবদন-নেসা মনিকা। এসময় লেখক ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মেলায় আগত দর্শনার্থী ও পাঠকরা।

এসময় গুলবদন-নেসা মনিকা বলেন, বইটি পড়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া আবদুল মতিনকে খুঁজে পেয়েছি। সবাই আবদুল মতিনের সংগ্রামের কথা বলে কিন্তু ১৯৪৮ সাল থেকে ১৯৫২ সাল পর্যন্ত তাঁর সবটা কেউ বলে না। বইতে লেখক তুলে ধরেছেন আবদুল মতিনের সবটা।

তিনি বলেন, ভাষা আন্দোলনে মেয়েদের ভূমিকা নিয়ে কেউ লেখে না। বইতে আবদুল মতিনকে সমর্থন ও পাশে থাকা মেয়ে সংগ্রামীদের কথা তুলে ধরা হয়েছে। আমার খুব ভালো লেগেছে বইটি পড়ে।

বইটি সম্পর্কে মোস্তফা মনন বলেন, ভাষা আন্দোলনের যে ইতিহাস আমরা পাই, তা কিছুটা অসম্পূর্ণ ও দৃষ্টিভঙ্গিগত প্রকৃত ইতিহাস নয়। ভাষা সংগ্রামের ঘটনা প্রবাহের কিছু মূল্যবান অংশ চেপে রাখা হয়েছে। আবার কোনো কোনো লেখক কয়েকটি ঘটনাকে অতিরঞ্জিত করে উপস্থাপন করেছেন।

মোস্তফা মনন ও তার উপন্যাসের প্রচ্ছদ

তিনি বলেন, চাপা দেওয়া ইতিহাস খনন করেছি এই উপন্যাসে। আমার বিবেচনায় ভাষা আন্দোলন ইতিহাসে দুইটি ঘটনা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এক হচ্ছে, ১৯৪৮ সালে কার্জন হলে জিন্নাহর বক্তৃতায় উর্দু ভাষা প্রশ্নে প্রতিবাদ করা। ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় ভাষা সংগ্রাম পরিষদের ১১ জন নেতা ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করতে চাননি, মাত্র তিনজন ১৪৪ ধারা ভাঙার পক্ষে ভোট দিয়েছিল। এ তিনজনের একজন ভাষা মতিন বলেন, ‘‘আগামীকাল সকালে সাধারণ ছাত্রদের উপস্থিতিতে সিদ্ধান্ত নিতে হবে, এ বলে তিনি স্থানত্যাগ করেন। বলা যায়, এ ঘটনা না হলে ২১ ফেব্রুয়ারি হতো না।’’

বইটি মেলায় এনেছে শোভা প্রকাশ। প্রচ্ছদ এঁকেছেন শিবু কুমার শীল।

মোস্তফা মনন ‘দীপ্ত টিভি’র নাটক বিভাগে কর্মরত আছেন। দীপ্ত টিভির ধারাবাহিক নাটক ‘পালকি’ ও মাছরাঙা টিভির ‘নারী’সহ বেশকিছু নাটক ও টেলিছবি নির্মাণ করেছেন তিনি।


এসএনএ


oranjee