ঢাকা, সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯ | ১০ আষাঢ় ১৪২৬

 
 
 
 

শহীদ বুদ্ধিজীবী শহীদুল্লাহ কায়সারের ৯০তম জন্মদিন আজ

গ্লোবালটিভিবিডি ১২:০৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৯

শহীদুল্লাহ কায়সার। ছবি: সংগ্রহ

খ্যাতিমান সাংবাদিক, লেখক ও শহীদ বুদ্ধিজীবী শহীদুল্লাহ কায়সারের ৯০তম জন্মদিন আজ। তিনি ১৯৭২ সালে ফেনী জেলার মাজুপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পুরো নাম আবু নঈম মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ।

বাবার নাম মাওলানা মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ ও মায়ের নাম সৈয়দা সুফিয়া খাতুন। ১৯৪২ সালে প্রবেশিকা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে উচ্চতর শিক্ষার জন্য তিনি ভর্তি হন কলাকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজে। ১৯৪৬ সালে তিনি এখান থেকে অর্থনীতিতে অনার্সসহ বিএ পাস করেন। অর্থনীতিতে এমএ পড়ার জন্য কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন তিনি। একই সঙ্গে তিনি 'রিপন কলেজে' আইন বিষয়েও পড়াশোনা শুরু করেন। ১৯৪৭ সালে দেশ বিভাগের পর তার বাবা ঢাকায় চলে আসেন। তখন তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতিতে এমএ ভর্তি হন। তবে এ ডিগ্রি লাভ করার আগেই পড়াশোনার ইতি টানতে হয় তাকে।

শহীদুল্লা কায়সার পূর্ব পাকিস্তান কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য ছিলেন। বামপন্থী রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ততার কারণে তিনি একাধিকবার কারাবরণ করেন। ১৯৫৬ সালে কারাগার থেকে মুক্তি লাভের পর মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী পরিচালিত 'সাপ্তাহিক ইত্তেফাক' পত্রিকায় যোগদান করেন। এভাবেই তিনি যুক্ত হন সাংবাদিকতায়। তিনি ১৯৫৮ সালে 'দৈনিক সংবাদ'-এর সম্পাদকীয় বিভাগে সহকারী সম্পাদক হিসেবে যোগ দেন। ১৯৫৮ সালের ৭ অক্টোবর জেনারেল আইয়ুব খান কর্তৃক সামরিক আইন জারি হওয়ার এক সপ্তাহের মধ্যে ১৪ অক্টোবর তাকে আটক করা হয়। জননিরাপত্তা আইনে তাকে ১৯৬২ সাল পর্যন্ত আটক রাখা হয়। মুক্তি লাভ করেই তিনি আবারও 'দৈনিক সংবাদ'-এর সম্পাদকীয় বিভাগে যোগ দেন।

তিনি সারেং বৌ, সংশপ্তকসহ বহু কালজয়ী উপন্যাসের রচয়িতা। পেয়েছেন আদমজী সাহিত্য পুরস্কার, বাংলা একাডেমী পুরস্কার, স্বাধীনতা পুরস্কারসহ অনেক পুরষ্কার। ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় আলবদর বাহিনীর কজন সদস্য তাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর তার কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি।

 

এএইচ/এসএনএ


oranjee