ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ | ৫ কার্তিক ১৪২৬

 
 
 
 

আবারও আত্মহত্যার চেষ্টা মীরের

গ্লোবালটিভিবিডি ১১:৫২ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

কলকাতার জনপ্রিয় মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মীর আফসার আলী সম্প্রতি একসঙ্গে ৮৭টি স্লিপিং পিল খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। এর আগেও তিনবার আত্মহত্যার ব্যর্থ চেষ্টা করেছিলেন এই অভিনেতা। ভারতীয় একটি রেডিওকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এই উপস্থাপক ও অভিনেতা জানান, ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে ২০১৯-এর সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চারবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন।

মীর বলেন, অত গভীরে ঢুকতে চাই না। তাহলে ক্ষতগুলো আরও তাজা হয়ে যাবে। হ্যাঁ সব কিছু রয়েছে আমার। আল্লাহ সব কিছু দিয়েছেন। আমি যা যা কিছু স্বপ্নেও ভাবতে পারিনি সে সবকিছু আমার দখলে রয়েছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও কিছু একটার পেছনে ছুটতে থাকা, কিছু একটা তাগিদ, কোনও একটা জেদের বশে, করেছি এই কাজ। একবার নয়, দু’বার নয়, চার-চারবার।

টাকাপয়সা-যশ-প্রতিপত্তি সবই তো আছে। তাহলে কেন? মীরের জবাব, যিনি লোকাল ট্রেনে করে অফিস আসেন বা যিনি বড় অফিসে বছরে একবার ইনক্রিমেন্টের অপেক্ষায় পাগলের মতো খাটছেন, তিনি মনে করতেই পারেন আমি যা করেছি তা বড়লোকদের বিলাসিতা বা পাগলামি। কিন্তু বিশ্বাস করুন, একটা স্টেজে আমাদের সবার ইনসিকিউরিটি, ভয় কিন্তু এক। ইনসিকিউরিটি, ভয়, পারফরম্যান্সের প্রেশার- এগুলো কিন্তু টাকা বা প্রতিপত্তি দেখে না। ইট ক্যান অ্যাফেক্ট এনিবডি।

সুইসাইড করার চিন্তা মাথায় এলে, আমাদের কী কী করা উচিত? জবাবে মীর বলেন, প্রথমেই বলি, এরকম সুইসাইডের চিন্তা সত্যি কখনও মাথায় আসে, তাহলে সঙ্গে সঙ্গে কাছের কোনও মানুষকে সেটা জানান। পাশে কেউ না থাকলে তাকে ফোন করে কথাটা বলুন। সেই মানুষটির সঙ্গেই কথা বলবেন যিনি আপনাকে জাজ করবেন না, যিনি আপনাকে অপমান করবেন না।

দ্বিতীয়ত, নিজের মনের ভিতর যদি ঝড় শুরু হয়, সেটাকে দয়া করে আটকাবেন না। আপনি যত ভেতরের ঝড় আটকে রাখবেন নিজের ভেতরে, মনে রাখবেন সেই ঝড় কিন্তু বিস্ফোরণের মতো ফাটবে একদিন। তাই কিছুতেই সেই স্টেজ অবধি নিজেকে নিয়ে যাবেন না। আর ফাইনালি, যদি কোনও সাইকিয়াট্রিস্টের কাছে যান, প্রথমদিন থেকে তাকে সবটা বলুন। আমি প্রথম প্রথম অনেক কিছু বলতাম না। পরে বুঝেছি আমি কত বড় ভুল করেছি।

আরকে


oranjee