ঢাকা, সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯ | ১০ আষাঢ় ১৪২৬

 
 
 
 

নববর্ষ উপলক্ষ্যে গ্লোবাল টিভির একান্ত সাক্ষাৎকারে গায়ক বালাম

গ্লোবালটিভিবিডি ৮:০১ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৩, ২০১৯

ছবি- সংগ্রহ

বাংলাদেশের অবিসংবাদিত ব্যান্ড তারকা আইয়ুব বাচ্চুর অকাল প্রয়াণের পর থেকেই তার ভক্তদের মাঝে একটা কথাই বেশ আলোচিত হতো- আইয়ুব বাচ্চুর হাতে গড়া ব্যান্ড এলআরবি’র প্রধান গায়ক হিসেবে এর পরে কাকে দেখা যাবে?

এই প্রশ্ন মনে জাগার পরে বা নিজেরা নিজেরা এর উত্তর খুঁজতে গিয়ে এলআরবি’র ভক্তদের অনেকেই কল্পনায় আইয়ুব বাচ্চুর গানের কন্ঠের সাথে মিলে যাওয়া কোনো গায়ককে এলআরবি’র পরবর্তী গায়ক হিসেবে পাবেন বলে ধারণা করেছিলেন।

ভক্তদের মনে জাগা সকল ধ্যান ধারণায় বিস্ময় জাগিয়ে এলআরবি তাদের প্রধান গায়ক হিসেবে নির্বাচিত করেছেন দেশের আরেক জনপ্রিয় গায়ক বালামকে। এর পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ দেশজুড়ে এলআরবি ভক্তদের মাঝে অনেক অসন্তোষজনক প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে।

এ প্রসঙ্গে গ্লোবাল টিভির কাছে বিস্তারিত জানিয়েছেন নন্দিত গায়ক ও সঙ্গীত পরিচালক বালাম। তার সাক্ষাৎকার নিয়েছেন গ্লোবাল টিভির নির্বাহী সম্পাদক অনুরূপ আইচ

 

গ্লোবালঃ ভাই, কেমন আছেন? 

বালামঃ ভালো আছি ভাই।

গ্লোবালঃ এলআরবিতে আপনার যোগ দেয়ার খবরে তো গোটা দেশ তোলপাড়। এ নিয়ে নেগেটিভ মন্তব্য করছেন অনেকেই। আপনার প্রতিক্রিয়া কি?

বালামঃ অনেকেই হয়ত বাচ্চু ভাইয়ের কন্ঠের জায়গায় আমাকে কল্পনা করতে পারছেন না। বাচ্চু ভাইয়ের মতন এত বড় মাপের তারকার বিকল্প আমি হতেও পারবো না। এটা চাইছেও না এলআরবি। কাজেই এলআরবি যখন আমার কাছে প্রস্তাব নিয়ে এসেছিল তার পরে আমিও অনেক ভেবে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এর অনেকগুলো কারণ রয়েছে।

গ্লোবালঃ প্রথম কারণ কি?

বালামঃ প্রথম কারণ হলো বাচ্চু ভাইয়ের মতো একজন লিজেন্ডকে সম্মান জানানো।

গ্লোবালঃ সেটা কেমন?

বালামঃ বাচ্চু ভাই এবং তার ব্যান্ড এলআরবি দেশ ও বিশ্বজুড়ে অনেক জনপ্রিয়। বাচ্চু ভাইয়ের অকাল প্রয়াণের পরে নানা জনে নানা কথা বললেও কেউ কিন্তু এলআরবির ভালোর জন্যে কোনো সাজেশান দেননি প্রকাশ্যে। হয়তোবা সাজেশন দিলেও তা গ্রহণীয় হতো কিনা সেটা এলআরবির সবার সিদ্ধান্তের ব্যাপার ছিল। অন্যদিকে এলআরবিও তাদের ব্যান্ডে আমি ছাড়া আর কারো কাছে প্রস্তাব নিয়ে যাননি ব্যান্ডের প্রধান গায়ক হওয়ার জন্যে। আমার কাছে এ প্রস্তাব আসার পর থেকেই একটা কথা মনে হয়েছে, মুখে মুখে ভালোবাসার কথা না বলে সত্যিকারে আমি যে আইয়ুব বাচ্চু ভাইকে শ্রদ্ধা করি তা কাজে দেখানোর সুযোগ পেয়েছি আমি। এছাড়া এলআরবি যতদিন থাকবে ততদিন আইয়ুব বাচ্চুর স্বপ্নের ব্যান্ডটার সাথে আমিও যুক্ত থাকতে পারবো। এটাই তো আমার জন্যে বড় একটা ব্যাপার। আগামী প্রজন্মও শিখতে পারবে একজন লিজেন্ডকে সম্মান দিতে আরেকজন গায়ক কি করতে পারে। এমন তো না যে, আমি দেশের কোথাও লুকিয়ে থাকা শিল্পী থেকে হুট করে এলআরবিতে যুক্ত হয়েছি

গ্লোবালঃ অনেকেই তো মন্তব্য করছেন, আইয়ুব বাচ্চুর গানগুলো আপনার কন্ঠে উনার মতন ভালো লাগবে না। এ নিয়ে আপনার কি ধারণা?

বালামঃ এলআরবি ব্যান্ডই চাইনি বাচ্চু ভাইয়ের মতন কন্ঠের কাউকে তাদের নতুন পথ চলায় যুক্ত করতে। এলআরবিও  চাইছে, নতুন কিছু উপহার দিতে। পরবর্তীতে এলআরবির শোগুলো দেখে ভক্তরা বুঝতে পারবেন, এলআরবি নতুনত্ব আনতে পেরেছে কিনা। আগাম কিছু বলে তো আর লাভ নেই। তাছাড়া এলআরবির সাথে সব শোতে তো আমি আমার জনপ্রিয় গানগুলোও গাইবো।

গ্লোবালঃ সেক্ষেত্রে এলআরবির গানগুলোর সাথে কি আপনার গানও তাহলে এলআরবির শোতে বাজবে?

বালামঃ হুম। এ ব্যাপারটা চূড়ান্ত করেই আমি এলআরবিতে যোগ দিয়েছি। আমার প্রতিটি গান আমার সন্তানের মতন। তাছাড়া আমার তথা বালামের যেহেতু অনেক ভক্ত আছে দেশে, তাদেরকে তো আমি কষ্ট দিতে পারবো না কখনোই। আমার এ সিদ্ধান্তে এলআরবিও সন্তুষ্ট।

গ্লোবালঃ আপনি একক গানের ক্যারিয়ারে জনপ্রিয় হওয়ার আগে ‘ওয়ারফেজ’ ব্যান্ডে ছিলেন। সে ঘরনা আর এলআরবির ঘরনা এক নয় বলা চলে। আবার আপনার জনপ্রিয় একক গানগুলোও অন্য ধরণের- এ নিয়ে আপনার ভক্তরা বা এলআরবির ভক্তিরা দ্বিধা বিভক্ত হবে কিনা?

বালামঃ দেখুন, গান তো গানই। তাছাড়া একজন শিল্পী যত ধরনের গান গাইতে পারবেন সে শিল্পী ততবেশী জনপ্রিয়তা পাবেন। এর অনন্য উদাহরণ হয়ে আছেন আমাদের শ্রদ্ধেয় বাচ্চু ভাই। তাছাড়া একজন শিল্পীর বয়স ও অভিজ্ঞতা বাড়ার পরে এক ধরণের দায়বদ্ধতা তৈরি হওয়া উচিত দেশের জন্যে বা দেশের সঙ্গীতের জন্যে কিছু করার। আমার ভেতরেও সে তাগিদ এসেছে বলেই আমি আজ এলআরবিতে।  এর পরে এলআরবির যখন নতুন গান বাজারে আসবে তখন তো সেটা আমার গায়কীতে প্রকাশ পাবে। সেক্ষেত্রে আমার মনে হয় এলআরবির ভক্তরা নতুনত্ব পাবেন। এমন তো না যে, আমি যতদিন এলআরবিতে গান গাইবো ততদিন এলআরবি শুধু পুরাতন গান রিমেক করে প্রকাশ করবে। কাজেই অনেকের নেগেটিভ মন্তব্য নিয়ে আমিও ভাবছি না।  এলআরবি  তো ভাবছেই না।          


oranjee